নয়াদিল্লি: আজ থেকে নতুন আর্থিক বছর শুরু হয়েছে। নতুন আর্থিক বছরের প্রথম দিনে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের (LPG Gas Cylinder) দাম ১০ টাকা কমানো হয়েছে। রাজধানী দিল্লিতে ভর্তুকি ছাড়াই ১৪.২ কেজি এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম হ্রাস পেয়ে হয়েছে ৮০৯ টাকা। ১ এপ্রিল থেকে কলকাতায় ৮৩৫ টাকা ৫০ পয়সা, মুম্বইতে ৮০৯ এবং চেন্নাইতে ৮২৫ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে সিলিন্ডার।

কিন্তু আপনি কি জানেন মধ্যবিত্তের মুখে হাসি ফোটাতে Paytm আবার একটি দুর্দান্ত অফার নিয়ে এসেছে। এই অফারের আওতায়, আপনি কেবল ৯ টাকায়, ৮০৯ টাকার একটি গ্যাস সিলিন্ডার পেতে পারেন।পেটিএম থেকে গ্যাস সিলিন্ডার বুকিংয়ের জন্য এই নগদ ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে। এই অফারের আওতায় সিলিন্ডার বুকিংয়ের জন্য ৮০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক পাবেন। পেটিএমের এই অফারটি ২০২১-এর ৩০এপ্রিল পর্যন্ত বৈধ।

এই অফারের সুবিধা নিতে আপনাকে আপনার মোবাইলে পেটিএম অ্যাপ ইন্সটল করতে হবে।অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরে, আপনাকে আপনার গ্যাস এজেন্সি দিয়ে সিলিন্ডার বুকিং করতে হবে।প্রথমত, আপনাকে পেটিএম-এ যেতে হবে এবং তারপর Show more অপশনে ক্লিক করতে হবে।এর পরে, ‘Recharge and Pay Bills’ এ ক্লিক করতে হবে।আপনার কাছে সিলিন্ডার বুক করার বিকল্প আসবে।

এখানে আপনাকে আপনার গ্যাস সরবরাহকারীকে বেছে নিতে হবে।বুকিংয়ের আগে আপনাকে FIRSTLPG এর প্রোমো কোড দিতে হবে যাতে আপনি ক্যাশব্যাক-এর সুবিধা পেতে পারেন।এই ক্যাশব্যাক অফারটি ২০২১ সালের ৩০ এপ্রিল শেষ হবে।বুকিংয়ের ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনি একটি ক্যাশব্যাক স্ক্র্যাচ কার্ড পাবেন।এই স্ক্র্যাচ কার্ডটি ৭ দিনের মধ্যে ব্যবহার করতে হবে। এই অফারটি শুধুমাত্র তাদের জন্যে যারা প্রথম Paytm থেকে গ্যাস বুকিং করছেন।

গত জানুয়ারি থেকেই ধীরে ধীরে বাড়ছিল ভরতুকিযুক্ত রান্নার গ্যাসের দাম। ফেব্রুয়ারি থেকেই সেই গ্রাফ ক্রমশই ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। পেট্রল-ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের দাম হয়ে দাঁড়িয়েছিল বিরোধীদের হাতিয়ার। পশ্চিমবঙ্গ-সহ পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে সব বিরোধী দলই সরকারকে কাঠগড়ায় তুলেছে এই মূল্যবৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে। যদিও কেন্দ্র তখন থেকেই বলে এসেছে, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার ফলেই এই নিত্যপ্রয়োজনীয় জ্বালানির দাম বেড়েছে। সেই সঙ্গে রাজ্য সরকার যে কর নেয়, সেটাও দাম বাড়ার ফ্যাক্টর বলে দাবি জানিয়েছিল কেন্দ্র।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.