নয়াদিল্লি: ২০২০ আইপিএলে টাইটেল স্পনসর হিসেবে দেখা যেতে পারে পতঞ্জলিকে৷ অর্থাৎ ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীত ধারাভাষ্যকারদের মুখে শোনা যেতে পারে পতঞ্জলি আইপিএল শব্দবন্ধনী৷

ভারত-চিন রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে চলতি বছর আইপিএল থেকে সরে দাঁড়িয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগের টাইটেল স্পনসর থেকে সরে গিয়েছে চিনা মোবাইল সংস্থা ভিভো৷ তারপরই ২০২০ আইপিএলে টাইটলে স্পনসর খুঁজতে শুরু করে দিয়েছে৷ এই পরিস্থিতিতে মেগা এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পনসর হওয়ার দৌড়ে নিজেদের ইচ্ছের কথা জানিয়ে দিল বাবা রামদেবের আয়ুর্বেদ সংস্থা পতঞ্জলি।

আইপিএলের হাত ধরে বিশ্বের কাছে নিজেদের প্রোডাক্ট তুলে ধরতে চাইছে হরিদ্বারে অবস্থিত রামদেবের এই সংস্থার মুখপাত্র এসকে তিজারাওয়ালা পিটিআই-কে জানিয়েছেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে ভাবচ্ছি৷ এ বারের আইপিএলে আমরা টাইটেল স্পনসর হতে চাই। সারা বিশ্বে পতঞ্জলি ব্র্যান্ডের বাজার তৈরি করাই আমাদের লক্ষ্য। তাই আমরা বিষয়টি বিবেচনা করছি৷’

আইপিএলের সঙ্গে পতঞ্জলির নাম জড়িয়ে পড়লে সংস্থাটির নামও বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়বে যে ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই। বিশ্বের বৃহত্তম টেলিভিশন ভিউয়ারশিপ টুর্নামেন্ট হল আইপিএল৷ এ কথা মাথায় রেখে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে প্রস্তাব দেওয়ার কথা চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিজারাওয়ালা।

তবে কোম্পানি এখনও এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি বল জানান তিনি৷ তিজারাওয়ালা বলেন, ‘তবে আমরা আইপিএলে স্পনসর করবে কিনা, তা এখনও চূড়ান্ত নয়৷’ তাঁর মতে, আইপিএল ২০২০ টাইটেল স্পনসর নিয়ে সোমবারই বিসিসিআই-এর কাছে তাঁদের ইচ্ছের কাথা জানিয়েছে রামদেবের এই সংস্থা৷ ১৪ অগস্টের মধ্যে তারা তাদের প্রস্তাব পেশ করবে বলেও জানা গিয়েছে৷

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে মার্চ মাস থেকে স্থগিত থাকা চলতি বছরের আইপিএলে হতে চলেছে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে৷ ফাইনাল ১০ নভেম্বর৷ তবে তা দেশের মাটিতে নয়৷ বিশ্বের সবচেয় বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ এবার হবে সংযুত্ত আরব আমিরশাহীতে৷

কিন্তু গত জনে গালওয়ান প্রদেশে ভারত-চিন সীমান্তে সংর্ঘষের ফরে দু’দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে৷ ফরে করোনা ছাড়া স্পনসরশিপ নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় বিসিসিআইকে৷ বিনা প্ররোচনায় চিনা সৈন্যদের হাতে ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের শহীদ হওয়ার পর সারা দেশে চিন বিরোধী প্রচার দেখা দেয়৷ শুধু তাই নয়, চিনা পন্য বর্জনের ডাকও দেওয়া হয়৷

এই পরিস্থিতিতে আইপিএলের টাইটেল স্পনসর নিয়ে দেশের বিরোধ দেখা দেওয়ায় চলতি বছর আইপিএলের টাইটেল স্পনসর থেকে সরে দাঁড়ায় চিনা মোবাইল সংস্থা ভিভো৷ কিন্তু ভিভোর সঙ্গে বোর্ডের ২০২২ পর্যন্ত চুক্তি রয়েছে৷ তবে চলতি বছর আইপিএলের টাইটেল স্পনসর হিসেবে দেশীয় আয়ুর্বেদ প্রোডাক্ট প্রস্তুতকারক সংস্থা পতঞ্জলিকে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না৷ হরিদ্বারে অবস্থিত রামদেবের এই আয়ুর্বেদ সংস্থার বার্ষিক টার্নওভার হল প্রায় ১০ হাজার ৫০০ কোটি টাকা৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও