মুম্বই: আইপিএল নিলামের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি বিদেশি ক্রিকেটার তিনি৷ এই মুহূর্তে স্বপ্নের ফর্মেও রয়েছেন অজি ডানহাতি পেসার৷ ভারতে ওয়ান ডে সিরিজ খেলতে এক ফ্যানের কাছ থেকে স্মরণীয় পুরস্কার পেলেন নাইট তারকা৷

গত ডিসেম্বর ত্রয়োদশ আইপিএল নিলামে প্যাট কামিন্সকে সাড়ে ১৫ কোটি টাকায় কিনেছে কলকাতা নাইটরাইডার্স৷ আইপিএল নিলামের ইতিহাসে এটাই কোনও বিদেশি ক্রিকেটারের সর্বোচ্চ দাম৷ স্বাভাবিকভাবেই আইপিএল নাইটদের জার্সি গায়ে নামার আগে ভারতের বিরুদ্ধে অজি এই তারকা পেসারকে নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটমহলে আলোচনা সর্বত্রই৷

ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেই সফল কামিন্স৷ মঙ্গলবার ওয়াংখেড়েয় সিরিজের প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচে বল হাতে সফল এই অজি পেসার৷ ১০ ওভারে ৪৪ রান দিয়ে ভারতীয় ইনিংসের দু’টি উইকেট তুলে নেন তিনি৷ ভারতীয় ইনিংসের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী শিখর ধাওয়ান ও মারকুটে ঋষভ পন্ত তাঁর শিকার৷

তবে দেশের জার্সিতে ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগেই দারুণ এক পুরস্কার পান নাইটদের এই তারকা পেসার৷ এক ফ্যানের কাছ থেকে ২০১৫ সালে তাঁর কেকেআর জার্সি উপহার হিসেবে পান কামিন্স৷ উপহার হাতে নিয়ে এক ভিডিও বার্তা আপ্লুত কামিন্স বলেন, ‘অনেক দিন পর আমি ভারতে ফিরেছি৷ আমার অনেক সমর্থক রয়েছে৷ তাদের একজন আমাকে ২০১৫ সালে আমারই নাইট জার্সি উপহার দিয়েছে৷ এর সঙ্গে আমার অনেক স্মরণীয় মুহূর্ত জড়িয়ে রয়েছে৷ সুতরাং আগামী মরশুম নিয়ে আমি ভীষণ উত্তেজিত৷’

এর আগে ২০১৪ এবং ২০১৫ মরশুমে নাইটদের হয়ে আইপিএল খেলেছেন কামিন্স৷ কিন্তু সেবার সফল হননি৷ তারপর আইপিএল ছেড়ে দেশের হয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বছর পঁচিশের ডানহাতি এই অজি পেসার৷ আগের সেই স্মৃতি উল্লেখ করে কামিন্স বলেন, ‘ইডেনে গার্ডেন্সে আমার অনেক স্মৃতি রয়েছে৷ যখন ছোট ছিলাম, তখন থেকেই দেখেছি ইডেনে এক লক্ষ ভারতীয় সমর্থকদের সামনে খেলা হচ্ছে৷ তারপর ২০১৪ ও ২০১৫ মরশুমে আমি কেকেআর-এর হয়ে খেলার সময় মাঠ ভর্তি দর্শক দেখেছি৷ সেই স্টেডিয়ামে আবার খেলবে এটা ভেবেই উত্তেজিত৷’

সম্ভবত মার্চের শেষে শুর হচ্ছে ত্রয়োদশ আইপিএল৷ তখনই নাইট জার্সিতে দেখা যাবে কামিন্সকে৷ কিন্তু তার আগে পুরনো কেকেআর জার্সি নিয়ে তার লোগো নিয়ে নিজের বক্তব্য রাখেন৷ তিনি বলেন, ‘এই লোগোটা আরও ভালো করে দেখতে চাই৷ কারণ এটিতে দু’টি স্টার রয়েছে৷ কারণ আমরা দু’বার ট্রফি জিতেছি৷’ ২০১২ ও ২০১৪ আইপিএল খেতাব জেতে কিং খানের দল৷ ২০১৪ চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্য ছিলেন কামিন্স৷