কলকাতা: ৩৬.৬৫ কোটি টাকা ঝুলিতে নিয়ে বৃহস্পতিবার নিলামে বসেছিল আইপিএলে দু’বারের চ্যাম্পিয়ন কলকাতা নাইট রাইডার্স। আর হোমটাউনে প্রথমবার নিলামেই ইতিহাস গড়ল রেড চিলিজ এন্টারটেইনমেন্ট ও মেহতা গ্রুপের এই ফ্র্যাঞ্চাইজি। ২০১৪ সপ্তম সংস্করণে খেলে যাওয়া অজি ফাস্ট বোলার প্যাট কামিন্সকে এদিনের নিলামে ১৫.৫০ কোটি টাকায় ঘরে তুলল কেকেআর। ২০১৭ নিলামে ১৪.৫ কোটি টাকায় রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টের জালে ধরা দিয়েছিলেন বেন স্টোকস। ইংরেজ অল-রাউন্ডারের সেই রেকর্ড ছাপিয়ে সবচেয়ে দামি বিদেশি ক্রিকেটার হিসেবে প্যাট কামিন্সকে ঘরে তুলে ইতিহাস গড়ল নাইট রাইডার্স।

বিদেশি ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএল ইতিহাসে সর্বাধিক দামে বিক্রিত হলেও সবমিলিয়ে কামিন্স রয়েছেন দ্বিতীয়স্থানে। ১৬ কোটি টাকায় ২০১৫ দিল্লি ডেয়ারডেভিলসে বিক্রী হওয়া যুবরাজ সিং এখনও অবধি আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি ক্রিকেটার। চোট-আঘাত সমস্যায় প্রথমবার আইপিএলে কেকেআর পরিবারের সদস্য হয়ে সেভাবে নিজের জাত চেনাতে পারেননি অজি ফাস্ট বোলার কামিন্স। এরপর ২০১৭ জার্সি বদল করে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হয়ে ১৬ ম্যাচে তাঁর নামের পাশে রয়েছে ১৭টি উইকেট। আর ২০২০ ত্রয়োদশ সংস্করণে ফের পুরনো জার্সিতে ফিরে উত্তেজিত প্যাট কামিন্স নিজেও।

বৃহস্পতিবার নিলামের পর এক ভিডিওবার্তায় উচ্ছ্বসিত টেস্ট ক্রিকেটের পয়লা নম্বর বোলার জানিয়েছেন, ‘কেকেআর পরিবারে ফিরতে পেরে ভীষণই উত্তেজিত। আইপিএলে আমার প্রথম দু’বছর এখানেই কাটিয়েছি। ব্যাজের (ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম) প্রশিক্ষণে খেলার তর সইছে না। পাশাপাশি আন্দ্রে রাসেল, সুনীল নারিনদের সঙ্গে খেলতে পারব ভেবে দারুণ লাগছে।’ এদিনের নিলামে কামিন্সকে নিয়ে প্রথমে দর কষাকষি হচ্ছিল দিল্লি ক্যাপিটালস ও আরসিবি-র মধ্যে। কিন্তু ১০ কোটির পর থেকে দর হাঁকায় কেকেআর। নূন্যতম ২ কোটি থেকে শেষ পর্যন্ত ১৫.৫০ কোটি টাকায় কামিন্সকে কেনে কেকেআর।

কামিন্সের পাশাপাশি পুরনো সৈনিক ইয়ন মর্গ্যানকেও দলে নিল কেকেআর ফ্র্যাঞ্চাইজি। ৫.২৫ কোটি টাকায় ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ককে কিনে নিল নাইটরা। নিলামে এদিন প্রথম মর্গ্যানকেই দলে নেয় শাহরুখের দল। কেকেআর-এর সঙ্গে দর হাঁকানোর লড়াইয়ে ছিল দিল্লি ক্যাপিটালস। এছাড়া ত্রয়োদশ সংস্করণে বরুণ চক্রবর্তীকে ৪ কোটি টাকায় কিনে চমক দিল কেকেআর। তামিলনাড়ুর মিস্ট্রি স্পিনারের জন্য গতবারও আগ্রহ দেখিয়েছিল নাইটরা।