স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রয়াত কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের দাপুটে নেতা রমেন পাণ্ডে৷শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়৷ এদিনই সন্ধেয় নিমতলা মহাশ্মশানে শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হবে।রমেন পাণ্ডের মৃত্যুতে শ্রমিক সংগঠন ও কংগ্রেসে শোকের ছায়া নেমে এসেছে৷দীর্ঘদিনের সহযোদ্ধার মৃত্যুতে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন রমেনবাবু৷ দুটি কিডনিই তাঁর নষ্ট হয়ে গিয়েছিল৷ তাঁর একটি কিডনি প্রতিস্থাপনও হয়েছিল৷ ১২ জুন বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি হন৷ এদিন সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে৷ মৃত্যুকালে শ্রমিক নেতার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর৷

গত কয়েক দশক ধরে আইএনটিইউসির নেতা ছিলেন তিনি৷ এককালে রাজ্যের বর্তমান মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ট হিসেবে পরিচিত ছিলেন৷রাজ্যের পরিসর পেরিয়ে সর্বভারতীয় স্তরেও বেশ জনপ্রিয় ছিলেন তিনি। একবার এশিয়া প্যাসিফিক এলাকার আন্তর্জাতিক সংগঠনেরও সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। বিগত কয়েক বছরে রাজ্যে কংগ্রেস ক্ষয়িষ্ণু হলেও, রমেনের নেতৃত্বে আইএনটিইউসির সাফল্য ছিল নজর কাড়ার মতো।

এদিন শোকবার্তায় তিনি লেখেন, “শ্রমিক আন্দোলনের অগ্রণী নেতা, আমার ছোট ভাই সম রমেন পাণ্ডের মৃত্যুর আকস্মিক সংবাদে আমি শোকস্তব্ধ। রমেন পাণ্ডের মৃত্যুতে শ্রমিক আন্দোলনের জগতে নিশ্চিতভাবে এক অপূরণীয় ক্ষতি হলো। আমি প্রয়াত রমেন পাণ্ডের শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গ এবং তাঁর অসংখ্য অনুরাগীদের প্রতি সহমর্মিতা জ্ঞাপন করি। কামনা করি, তাঁর বিদেহী আত্মা চিরশান্তি লাভ করুক।”

শনিবার বিকেলে প্রয়াত কংগ্রেস নেতার দেহ দলের রাজ্য সদর দফতরে নিয়ে আসা হবে৷ সেখানেই তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন কংগ্রেস কর্মী, সমর্থকরা৷