স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ফের ব্যস্ত সময়ে শিয়ালদহ মেন শাখায় সোদপুর রেল স্টেশনে রেল অবরোধ করল নিত্যযাত্রীরা। অবরোধের জেরে নাকাল হতে হল শিয়ালদহ-রানাঘাট মেন শাখার কয়েক হাজার অফিস ফেরত সাধারণ নিত্যযাত্রীদের।

নিরাপত্তার প্রশ্ন তুলে বুধবার বিকেল ৪ টে ৪৫ মিনিট থেকে সন্ধ্যে প্রাস সাড়ে ছ’টা পর্যন্ত দু’ঘণ্টা রেল অবরোধ করেন নিত্যযাত্রীরা। অবরোধকারীদের অভিযোগ, প্রতিদিন শিয়ালদহ থেকে আপ বারাকপুর লোকাল ছাড়ে বিকেল ৩ টে ৫৫ মিনিটে। ওই ট্রেন বিকেল ৪টে নাগাদ বিধাননগর রেল স্টেশনে ঢোকে৷

সেই সময় ওই ট্রেনে হুড়মুড়িয়ে তলোয়ার, ধারালো অস্ত্র সহ উঠে পড়ে বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী। তারা নিজেদের উৎসবের ধর্মের দোহাই দিয়ে চলন্ত ট্রেনে ভিড়ের মধ্যেই ধারালো অস্ত্র চালনা শুরু করে নিজেদের মধ্যে।

ওই দুষ্কৃতীরা প্রায় ১০-১২ জন ছিল বলে অভিযোগ নিত্যযাত্রীদের। নিত্যযাত্রীরা প্রকাশ্যে ভিড় ট্রেনের মধ্যে অস্ত্র চালনা দেখে ভয় পেয়ে যায়। আলখাল্লা পোশাক পরা ওই দুষ্কৃতীদের এই আকস্মিক অস্ত্রচালনার ফলে বেলঘরিয়া রেল স্টেশনের কাছে ট্রেনে থাকা পাঁচ ছয়জন নিত্যযাত্রী ধারালো তলোয়ারের খোঁচায় রক্তাক্ত হয়৷

আর তারপরই নিত্যযাত্রীরা এর প্রতিবাদ করে ওই দুষ্কৃতীদের ট্রেন থেকে নেমে যেতে বলে। দুষ্কৃতীরা ট্রেন থেকে নামতে অস্বীকার করলে বচসা শুরু হয় নিত্যযাত্রীদের সঙ্গে ওই দুষ্কৃতীদের।

এরপর ওই ট্রেন সোদপুর রেল স্টেশনে ঢুকলে নিত্যযাত্রীরা ট্রেনে যাতায়াতের নিরাপত্তার প্রশ্ন তুলে সোদপুর রেল স্টেশনের এক নম্বর লাইনে রেল অবরোধ শুরু করে। ঘটনার কথা স্টেশনে উপস্থিত অন্যান্য নিত্যযাত্রীরা

জানার পর তাঁরাও সোদপুর রেল স্টেশনের অন্যান্য রেল লাইনে বসে পড়ে। ফলে, আপ ও ডাউন শাখার সমস্ত ট্রেন চলাচল ব্যহত হয়৷ রেল অবরোধের জেরে বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল। প্রায় পৌনে দু’ঘণ্টা শিয়ালদহ মেন শাখার আপ ও ডাউন লাইনে বন্ধ থাকে ট্রেন চলাচল।

রেল পুলিশ ও খড়দহ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে সন্ধ্যে সাড়ে ছ’টা নাগাদ রেল অবরোধ তুলে দেয়৷ রেল পুলিস ও খড়দহ থানার পুলিশ অবরোধে সামিল নিত্যযাত্রীদের আশ্বাস দেয়, আগামী উৎসবের দিনগুলোতে লোকাল ট্রেনে তাঁরা কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করবে।

এরপরই রেল অবরোধ তুলে নেন নিত্যযাত্রীরা। এদিন সন্ধ্যে সাড়ে ছ’টা থেকে পুনরায় রেল চলাচল শুরু হয় শিয়ালদহ-রানাঘাট মেন শাখায়। পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই রেল অবরোধের জেরে বিকেল ৫ টার পর থেকে সন্ধ্যে সাড়ে ছ’টা পর্যন্ত ন’টি লোকাল ট্রেন বাতিল করা হয়েছে।