নয়াদিল্লি: কিছুটা স্বস্তি। ভারত ও সৌদি আরবের মধ্যে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের চলাচলে কিছুটা ছাড় দিল সৌদি আরব। জানা গিয়েছে ভারত থেকে যাত্রী না যাওয়ার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে কিছু শিথিলতা নিয়ে আসা হয়েছে। ২২শে সেপ্টেম্বর এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে।

জানানো হয়েছে, ভারত থেকে কোনও যাত্রী না নিয়ে যাওয়া হলেও, সৌদি আরব থেকে ভারতে যাত্রী নিয়ে আসতে পারবে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস। সৌদি আরবের জেনারেল অথরিটি অফ সিভিল অ্যাভিয়েশন জানিয়েছে, ভারত, ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা থেকে বিমান উড়ানে স্থগিতাদেশ রাখা হয়েছিল। তবে কিছু শিথিলতা সেখানে আনা হয়েছে। বলা হয়েছে এই সব দেশ থেকে যে সব যাত্রী সৌদি আরবে আসবেন, তাঁদের ১৪ দিন আগে থেকে জানাতে হবে।

বুধবার রাতে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের পক্ষ থেকে সৌদি আরবের সব যাত্রীদের এই তথ্য জানিয়ে দেওয়া হয়। এর আগে, ট্যুইটারে এয়ার ইন্ডিয়া জানায়, পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচী মেনেই দুবাই বিমানবন্দর থেকে ও দুবাই বিমানবন্দর পর্যন্ত সমস্ত বিমান উড়ান চালু করা হবে।

১৮ তারিখ রাতে একটি ট্যুইট বার্তায় এয়ার ইন্ডিয়া জানায়, শনিবার থেকেই ফের চালু হচ্ছে দুবাই থেকে আসা ও দুবাইগামী বিমান পরিষেবা। একদিন স্থগিতাদেশ জারি রেখে ফের বিমান পরিষেবা চালু করা হচ্ছে। এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুবাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, এর আগে, ১৮ তারিখ দুবাই সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটি অভিযোগ করে এয়ার ইন্ডিয়া দুবার করোনা পজেটিভ যাত্রী নিয়েই উড়ান পরিষেবা দিয়েছে। গত দু সপ্তাহে দুবার এই ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ। ২৮শে অগাষ্ট ও ৪ঠা সেপ্টেম্বর এই ঘটনা ঘটে বলে জানানো হয়।

দুবাইয়ের সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটি এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের পরিষেবা স্থগিত রাখার নির্দেশ দেয়। এরই সাথে দুবাইয়ে নিয়ে যাওয়া করোনা রোগীর চিকিৎসা খরচ ও কোয়ারেনটাইনের সব খরচ দেওয়ার জন্যও শাস্তি দেওয়া হয় এয়ার ইন্ডিয়াকে। দুবাই সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটি জানায়, দুবার করোনা টেস্টের ফল পজেটিভ থাকা সত্ত্বেও সেই রোগীকে বিমানে চড়ার ও যাত্রা করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে।

কমপক্ষে ১৫দিন এই স্থগিতাদেশ জারি রাখা হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। সেই নির্দেশ মেনে ১৮ই সেপ্টেম্বর থেকে এই স্থগিতাদেশ জারি করা হয়। তেসরা অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিতাদেশ বলবৎ থাকার কথা ছিল।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।