নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: তরুণীর মুখে মদের বোতল থেকে পানীয় ঢেলে দিচ্ছিনে এক তরুণ। এমনই তিন-তিনটে ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরছিল বেশ কয়েকদিন ধরে। ভোটের বাজারে ফেসবুকে প্রচার হয়, এটাই নাকি রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে। ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সেই ছবি। অবশেষে সেই ছবি নিয়ে মুখ খুলেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

ছবির ক্যাপশনে লেখা ছিল “এই হল আমাদের শিক্ষামন্ত্রী পার্থবাবুর ছেলে। এত শিক্ষায় ভরপুর ভবিষ্যতে এই হবে বাংলার শিক্ষামন্ত্রী। বাংলার অহঙ্কার।”

কিন্তু মঙ্গলবার পার্থ চট্টোপাধ্যায় ফেসবুকে পোস্ট করে জানিয়েছেন এই পোস্ট ভুয়ো। আদতে তাঁর কোনও পুত্রসন্তান নেই। গোপা দাস নামের মহিলা তাঁর প্রোফাইল থেকে এই তিনটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে লেখেন, “এই হল আমাদের শিক্ষামন্ত্রী পার্থবাবুর ছেলে। এ তো শিক্ষায় ভরপুর। ভবিষ্যতে এই হবে বাংলার শিক্ষামন্ত্রী। বাংলার অহঙ্কার।”

জানা যাচ্ছে, তরুণীর মুখে পানীয় ঢেলে দেওয়া ওই তরুণ আসলে প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ছেলে। তাঁকেই পার্থ’র ছেলে বলে প্রচার করার অভিযোগ উঠেছে। ২১ এপ্রিল সকাল ন’টা ২০ মিনিটে ফেসবুকে এই পোস্ট করেন গোপা দাস।

তবে ওই মহিলার ফেসবুক প্রোফাইল বলে দিচ্ছে, তিনি সিপিএম সমর্থকল সিবিপিএম প্রার্থীদের প্রচারের ছবিও রয়েছে তাঁর ওয়ালে।

কিন্তু পার্থবাবু মঙ্গলবার দুপুরে ফেসবুকে এই ঘটনার কড়া প্রতিক্রিয়া জানান। তিনি লিখেছেন, ”বেশ কয়েকদিন যাবত facebook এ কিছু মানুষ ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃত ভাবে একটি কুরুচিকর বার্তা ছড়িয়ে চলেছেন মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার উদ্দেশে যে বা যারা এগুলি করছেন তাদের উদ্দেশে বলবো অহেতুক মিথ্যা প্রচার করবেন না অবিলম্বে এই সমস্ত বার্তা facebook থেকে মুছে ফেলুন। নতুবা আইনত ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

এদিনই কিছুক্ষণের মধ্যে ওই পোস্ট ডিলিট করে দেন গোপা দাস নামে ওই মহিলা। তিনি লেখেন, ‘আনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য পোস্টটি তুলে নিলাম।’