স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সন্দেশখালির ঘটনা নিয়ে রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর প্রতিক্রিয়ার তীব্র কটাক্ষ করেছেন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘রাজ্যপালের বিদায়ঘণ্টা বেজে গিয়েছে।’

সন্দেশখালির ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। নিহতদের পরিবার ও স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি রাজ্যে শান্তি-সম্প্রীতি বজায় রাখার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন কেশরীনাথ ত্রিপাঠি। প্রধানমন্ত্রীকে সন্দেশখালি ইস্যুতে তিনি রিপোর্ট দিয়েছেন বলে খবর।

পড়ুন:   মুখ্যমন্ত্রীর হাতে উদ্বোধন হওয়া হাসপাতাল চালু বাঁকুড়ায়

শনিবার সন্দেশখালির ন্যাজাটে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছে চারজনের। যদিও মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা নিয়ে ধন্দ রয়েছে। বিজেপির দাবি, তাঁদের পাঁচ কর্মীকে খুন করেছে তৃণমূল। তবে পুলিশের রিপোর্টে বলা হয়েছে, সংঘর্ষে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে৷ এরমধ্য দুজন বিজেপি কর্মী, ও একজন তৃণমূল কর্মী৷ গোটা ঘটনার নবান্নের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

উচ্চস্তরের প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দিতে রবিবারই দিল্লিতে যান রাজ্যপাল। উচ্চস্তরের প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দেন। বোঝাই যাচ্ছিল সন্দেশখালিতে শনিবারের ঘটনার প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ হবে ওঠে। বৈঠকে সন্দেশখালি প্রসঙ্গ উঠেছিল কি না জানতে চাওয়া হলে রাজ্যপাল বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রীকে যা জানানোর জানিয়েছি।’’ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে তিনি বলেছিলেন, ‘‘রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার যা পরিস্থিতি , তা প্রধানমন্ত্রীকে খোলাখুলি জানাব। ’’সূত্রের খবর, এদিন প্রধানমন্ত্রীকে সন্দেশখালি ইস্যুতে তিনি রিপোর্ট দিয়েছেন বলে খবর।