স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: উপনির্বাচনের ফলফল নিয়ে আত্মবিশ্বাসের অভাব দেখা গেল তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গলায়৷ উপনির্বাচনে তৃণমূলের কেমন ফল হবে- এই প্রশ্নের জবাবে বুধবার পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ”উপনির্বাচনে সরকার পড়ে যাবে না। কিছুই হবে না।” বিজেপি তিনটি কেন্দ্রেই জেতার দাবি করেছে। তৃণমূল কটা জিতছে? মহাসচিবের জবাব, আমি জ্যোতিষী নই। মানুষের রায়ের উপর ভরসা রাখতে হবে।

সোমবার করিমপুর, খড়্গপুর সদর ও কালিয়াগঞ্জ বিধানসভার উপনির্বাচন হয়েছে। তার পরই রাজ্য বিজেপি নেতা মুকুল রায় চলে গিয়েছেন দিল্লিতে। মঙ্গলবার দেখা মাত্রই মুকুল রায়কে অমিত শাহ প্রশ্ন করেন, “কটা আসনে জিতবেন। আঙুল দেখিয়ে মুকুল রায় আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই বলেন, তিনটি আসনেই জিতব”।

মুকুলের জবাব শুনে খানিকটা বিস্মিত হয়ে যান অমিত শাহ৷ ফের মুকুলকে জিজ্ঞাসা করেন, তিনটি আসনেই জিতবেন? শুনে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে হিসাব দিতে শুরু করেন মুকুল। তিনি বলেন, আপনাকে আগেই সুরে বলেছিলাম তিনটি আসনে জেতার মতোই পরিস্থিতি রয়েছে। একটু পরিশ্রম করার দরকার ছিল শুধু। কাল ভোটের পর হিসাব করে দেখেছি তিনটিতেই বিজেপি জিতছে।

সোমবার তিন বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন ঘিরে দিনব্যাপী উত্তপ্ত ছিল কালিয়াগঞ্জ, করিমপুর এবং খড়গপুর। বেলা বাড়তেই একের পর এক ঘটনায় উত্তপ্ত হয় পরিস্থিতি। করিমপুরে রীতিমত জঙ্গলে ফেলে মারধর করা হয় বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদারকে। এই ঘটনার পরই ভারতের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার ও প্রধান নির্বাচন অফিসারকে চিঠি দেন বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবং বিজেপির রাজ্য নির্বাহী কমিটির সদস্য শিশির বাজোরিয়া।