মুম্বইঃ টেলিভিশন অভিনেতা পার্থ সামন্থনকে দেখা যাবে বড় পর্দায়। পার্থ জানিয়েছেন, তিনি তাঁর বলিউড যাত্রা শুরু করতে চলেছেন আলিয়া ভাটের সঙ্গে। ছবিটি এখন প্রি-প্রডাকশনে রয়েছে।

জানা গেছে এই বছরের শেষে ছবির জন্য শুটিং শুরু করবে পার্থ। নিজের বলিউড ডেবিউ নিয়ে খুবই উচ্ছ্বসিত তিনি। পার্থ জানিয়েছেন, বলিউড ইন্ডাস্ট্রির বাইরে থেকে তিনি এসেছেন। তাই এই সুযোগটা তাঁর কাছে অনেক বড়। তিনি কোন মতেই সুযোগটি হারাতে চান না। পার্থ নিজের একশো শতাংশ দিয়ে ছবিটিতে কাজ করবেন বলেই জানাচ্ছেন। তিনি আশা করছেন সব কিছু ভালো ভাবেই মিটবে। নিজের প্রথম বলিউড ছবি নিয়ে পার্থ ভীষণই আশাবাদী। তার উপর ছবিতে রয়েছেন বলিউড ডিভা আলিয়া।

কিছুদিন ধরে বি টাউনে জল্পনা চলছিল সঞ্জয় লীলা বনশালির ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াওয়াড়ি’ তে আলিয়ার উল্টো দিকে দেখা যাবে পার্থকে। যদিও এই বিষয়ে এখনও অবধি কোন অফিশিয়াল ঘোষণা করা হয়নি। এছাড়া খবর পাওয়া গেছে রেসুল পুকুটির ছবি ‘পিহারওয়া’-তে সাইন করেছেন পার্থ। ছবিতে রয়েছেন আলিয়া। ছবিটি মূলত চিন – ভারত যুদ্ধের সময় শহীদ হরভজন সিংয়ের গল্পকে তুলে ধরবে।

২০১৩ সাল থেকে পার্থ টেলিভিশনে কাজ শুরু করলেও ২০১৪ সালে MTV তে কলেজ রোমান্স ‘ক্যাইসি ইয়ে ইয়ারিয়া’ সিরিয়ালটি দিয়ে তিনি খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। এরপর তিনি সিনেমায় কাজ করার জন্যে সিরিয়ালে কাজ বন্ধ রেখেছিলেন। তিনি বেশ কিছু প্রোজেক্টও পেয়েছিলেন। তাদের মধ্যে একটির শুটিংও শুরু করেছিলেন কিন্তু সেই ছবিটি অসম্পূর্ণই থেকে গেছে। এরপর তিনি ‘ক্যাইসি ইয়ে ইয়ারিয়া’ সিজিন থ্রি দিয়ে ২০১৮ এ ডিজিটাল প্লাটফর্মে পা রাখেন। তবে একতা কাপুরের পপুলার রোম্যান্টিক ড্রামা ‘কাসউটি জিন্দেগি কি’ সিজন টু (২০১৮) তে অভিনয় করা পার্থের কেরিয়ারে একটা বড় মোড়। পার্থের উল্টো দিকে রয়েছেন এরিকা ফারনান্ডিস।

পার্থকে শীঘ্রই দেখা যাবে ALT Balaji-র অ্যাকশন ড্রামা ‘ম্যা হিরো বোল রাহা হু’ তে। এখনে তার রোম্যান্টিক অবতার ত্যাগ করে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডনের চরিত্রে দেখা যাবে পার্থকে। পত্রলেখা এবং আরস্লান গনি কেও দেখা যাবে এখানে। ২০ এপ্রিল থেকে সিরিজটির স্ট্রিমিং শুরু হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.