প্যারিস: টানা ১১ ম্যাচ জয়ে নজির গড়ল পিএসজি। ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে প্রথম পাঁচ লিগের দ্বিতীয় দল হিসেবে এই নজির গড়ল থমাস টাচেলের ছেলেরা। সেই সঙ্গে ১৯৬০-৬১ মরশুমে টটেনহ্যাম হটস্পারের রেকর্ডে থাবা বসাল তারা। রবিবার লিগা ওয়ানে ক্লাসিক ক্ল্যাশে মার্সেইকে ২-০ গোলে হারানোর সঙ্গে সঙ্গে চলতি মরশুমে লা লিগায় প্রথম ১১ ম্যাচ জিতে নিল তারা।

চোটের কারণে এদিনের ম্যাচে ছিলেন না কাভানি। পাশাপাশি এমবাপে’কে প্রথম একাদশে না রেখে সাহসী সিদ্ধান্ত নেন পিএসজি কোচ টাচেল। প্রথমার্ধ জুড়ে নিষ্প্রভ দেখায় পিএসজি’কেও। উল্টোদিকে ঘরের মাঠের ফায়দা তুলে গোল তুলে নিতে ব্যর্থ হয় মার্সেই। নিষ্ফলাই রয়ে যায় প্রথমার্ধের ফলাফল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে একাধিক সুযোগ তৈরি হলেও গোল আসছিল না কিছুতেই। গোল তুলে নেওয়ার লক্ষ্যে ৬২ মিনিটে এমবাপে’কে মাঠে নামিয়ে দেন টাচেল। মাঠে নেমে মিনিট তিনেকের মধ্যেই গোল করে দলকে এগিয়ে দেন ফরাসি স্ট্রাইকার। ৬৫ মিনিটে দি মারিয়ার বাড়ানো বল ধরে মার্সেইয়ের এক ডিফেন্ডারকে গতিতে পরাস্ত করেন তিনি। এরপর তাঁর ডানপায়ের কোনাকুনি শট জড়িয়ে যায় জালে। চলত লিগা ওয়ানে এটি তাঁর দশম গোল।

অতিরিক্ত সময়ে জুলিয়ান ড্র্যাক্সলারের দ্বিতীয় গোলের পিছনেও অবদান রাখেন ফ্রান্সের বিশ্বজয়ের নায়ক। এমবাপের থ্রু বক্সের মধ্যে পেয়ে ড্র্যাক্সলারের জন্য সাজিয়ে দেন নেইমার। ফাঁকা গোলে বল ঠেলতে কোন ভুল করেননি জার্মান মিডিও। এই গোলের সাথে সাথেই নিষ্পত্তি হয় ম্যাচের। দু’গোলে ম্যাচ জিতে ১১ ম্যাচ থেকে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শীর্ষে পিএসজি। দ্বিতীয়স্থানে থাকা লিলি’র চেয়ে পরিস্কার আট পয়েন্ট এগিয়ে তারা।