প্যারিস: অতিমারী করোনার জেরে ফ্রান্সে সবধরনের খেলাধূলায় রাশ টানল সেদেশের সরকার। যে অবস্থায় স্থগিত হয়েছিল ঠিক সেখানেই মরশুম শেষ করার কথা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী এদুয়ার ফিলিপ। আর মাঝপথেই মরশুমে বাতিল হওয়ায় পয়েন্টের নিরিখে লিগা ওয়ান চ্যাম্পিয়ন হল লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা পিএসজি।

লিগা ওয়ানের পাশাপাশি মাঝপথে বাতিল হয়ে গিয়েছে লিগা টু’ও। যেখানে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়েছে লরিয়েঁকে। পিএসজি ছাড়া দ্বিতীয়স্থানে শেষ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে মার্সেই। উল্লেখ্য, মারণ করোনাভাইরাসের জেরে আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যে কোনও ধরনের খেলা আয়োজনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ফ্রান্স সরকার। দর্শকশূন্য মাঠেও কোনো খেলা আয়োজন করা যাবে না। সম্প্রতি এক বিবৃতি মারফৎ ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এদুয়ার ফিলিপ আগামী ১১ মে থেকে দেশে লকডাউন আইন কিছুটা শিথিল করার ঘোষণা করলেও খেলাধূলায় মরশুম শেষ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন সম্প্রতি।

লিগ স্থগিত হওয়াকালীন লিগ টেবিলে দ্বিতীয়স্থানে থাকা মার্সেইয়ের থেকে ১২ পয়েন্ট বেশি নিয়ে লিগ শীর্ষে অবস্থা করছিল পিএসজি। যদিও লিগ এভাবে শেষ হওয়ায় ফলাফলে একদম খুশি নয় বাকি দলগুলো। তাঁদের অভিযোগ বাকি ১০ রাউন্ডের খেলায় অনেক হিসেব-নিকেশ ওলট-পালট হতে পারত। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলার সুযোগ থেকে বিরত হওয়ায় হতাশ লিয়ঁ।

এদিকে গত আট বছরে এই নিয়ে ফ্রান্সের চ্যাম্পিয়ন ক্লাবের তকমা ছিনিয়ে নিল প্যারিস সেন্ট জার্মেইন। এই নিয়ে মোট ন’বার খেতাব ঘরে তুলল তারা। যদিও সেলিব্রেশনটা কেবল সীমাবদ্ধ সোশ্যাল মিডিয়াতেই। পিএসজি মালিক আল-খেলাফাই সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, ‘চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইটা শেষ করার ব্যাপারে ফ্রান্সের সরকার যে সিদ্ধান্তটা গ্রহণ করেছে সেটাকে সম্মান জানাই এবং সমর্থন করি। মানুষের স্বাস্থ্য সর্বাগ্রে প্রাধান্য পাওয়া উচিৎ।’

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ চালু হলে সেক্ষেত্রে কী হবে? আল-খেলাফাই জানিয়েছেন, লিগ পুনরায় চালু হলে অংশগ্রহণ করার বিষয়টি আমাদের পরিকল্পনায় রয়েছে। যদি ফ্রান্সে খেলা সম্ভব না হয়, তবে আমরা আমাদের ফুটবলারদের জন্য সব শর্তসাপেক্ষে বিদেশে আমাদের ম্যাচগুলো আয়োজন করার ব্যবস্থা করব।’

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব