মুম্বই- সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করায় মাশুল গুনতে হল অভিনেত্রী পরিণীতি চোপড়াকে। সিএএ-র প্রতিবাদে সরব হয়েছে সারা দেশের মানুষ। জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও প্রতিবাদে মুখ খোলেন। এর পরেই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের মারধরের অভিযোগ ওঠে দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে। জামিয়া মিলিয়ার ঘটনার প্রতিবাদ করেন অভিনেত্রী পরিণীতি চোপড়াও।

পরিণীতি টুইট করেন, নাগরিকরা নিজের মতামত প্রকাশ করলেই যদি এরকম হয় প্রতিবার, শুধু সিএবি নয়, আমাদের এমন একটি বিল পাশ করানো দরকার যেখানে বলা থাকবে ভারত আর গণতান্ত্রিক নয়! নিজের মতামত প্রকাশ করার জন্য নির্দোষদের মারা হচ্ছে! এ তো বর্বরতা।

আর এই টুইটের জন্যই বড় মাশুল গুনতে হয়েছে পরিণীতিকে। হরিয়ানায় বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও ক্যাম্পেনের প্রধান মুখ ছিলেম পরিণীতি। জানা যাচ্ছে এই টুইটের পরেই নাকি সেই এনডোর্সমেন্ট থেকে বিজেপি সরকার সরিয়ে দিয়েছে অভিনেত্রীকে। যদিও পরিণীতি এই নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেননি।

তবে শুধু পরিণীতিই নয়। সিএএ-র বিরোধিতা করায় খেসারত দিতে হয়েছে অভিনেতা সুশান্ত সিংকেও। প্রতিবাদের পরেই সাবধান ইন্ডিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে অভিনেতাকে। সুশান্ত নিজেই টুইট করে তা জানিয়েছেন।