মুম্বই: অভিনেত্রী পরিনীতি চোপড়া এবং অক্ষয় কুমার সম্প্রতি মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে যোগ দেন৷নারীদের ‘সেল্ফ ডিফেন্স’ একাডেমির স্নাতক দিবস উপলক্ষে ওই অনুষ্ঠানে দু’জনেই তাঁদের ছোটবেলার টুকরো মুহুর্ত শেয়ার করেন৷পরিনীতি তাঁর ছোটবেলা প্রসঙ্গে বলেন যে তিনি সেই সময়ে ইভ-টিসিংয়ের সম্মুখীনও হয়েছেন৷এও জানান তিনি একটি দরিদ্র পরিবার মেয়ে, গাড়ি কেনার সামর্থ্য তাঁদের ছিল না৷সাইকেল চালিয়েই তিনি স্কুলে যেতেন৷সেই সময়ে তাঁকে ছেলেরা বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করত৷কিন্তু সেই সময়েও তিনি ভয় পাননি, তাঁর বাবা তাঁকে শিখিয়েছিলেন আরও মানসিকভাবে শক্তিশালী হতে৷ এমনভাবেই বড় হয়ে ওঠেন পরিনীতি৷ তাঁর এই সাক্ষাৎকারের ভিডিও সাড়া ফেলেছিল দর্শকদের কাছে, এবং অনুপ্রেরণাও জুগিয়েছেন বহুজনকে৷

কিন্তু এইখানেই থেমে থাকেনি ঘটনাটি৷

তাঁর এক স্কুলের বন্ধু কোনা গুপ্তা দাবি করেন যে পরিনীতি মিথ্যে বলছেন এবং সেই নিয়ে তিনি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে পোস্টও করেন৷
কি জানান কোনা গুপ্তা?
তিনি বলেন এটি একটি লজ্জার ঘটনা৷ধনী পরিবার থেকে আসা পরিনীতি ক্যামেরার সামনে মিথ্যে কথা বলছে৷এটাই বোধহয় সেলিব্রিটিদের আসল চেহারা৷তাঁরা মিথ্যে কথা বলে যেমন দরিদ্র, গাড়ি ছিল না এমন সব…৷এখানেও থামেননি গুপ্তা ম্যাম, তিনি আরও বলেন আমি ওই একই স্কুলে পড়তাম, আমার মনে আছে যে পরিনীতির বাবার গাড়ি ছিল৷আর স্কুলে সাইকেল নিয়ে যাওয়া সেই সময়ের ট্রেন্ড ছিল৷ এবং সেই ট্রেন্ডও ফলো করত ধনী পরিবারেরাই৷শেষে বলেন যে তাঁর (পরিনীতি চোপড়া) এ হেন মিথ্যে অন্তত সিজিএম (কনভেন্ট অফ জিসাস এন্ড মেরি) স্কুলের ছাত্রীরা আরও একটু ভাল করে বুঝতে পারবে৷

সেই সাক্ষাৎকারটি