কলকাতা: ‘বেডরুম’। কথাটির মধ্যে রয়েছে এক উদ্দাম ইঙ্গিত। আদিম সুড়সুড়ি। এই শব্দটি নিয়ে সিনেপর্দায় রোম্যান্স জমিয়েছিল তাঁরা। যদিও সে অনেকদিনের কথা। কিন্তু পুরনো সেই রোম্যান্সে পাল আবার তুললেন পরিচালক মনোজ মিশিগান। ‘তৃতীয় অধ্যায়’ দিয়ে ফিরছে পাওলি-আবির, এখবর কারও জানতে আর বাকি নেই। তবে এই জানা গল্পেরই অজানা কাহিনি শুনব পরিচালক, নায়ক ও নায়িকার মুখ থেকে…

পড়ুন: ফাগুনে কলকাতার তাপমাত্রা বাড়ালেন বলি-সুন্দরী

“থ্রিলার ধর্মী ছবি। সেই সঙ্গে ভালোবাসার পাঞ্চ। বলতে গেলে ‘তৃতীয় অধ্যায়’ একটা ছেলের গল্প। যে কিছু একটা সন্ধান করতে থাকে। এই খোঁজ তাঁকে নিয়ে যায় পাহাড়ি এক এলাকায়। সেখানে তাঁর দেখা হয় পুরনো বান্ধবীর সঙ্গে। স্মৃতির সিড়ি বেয়ে তাঁরা ফিরে যায় পুরনো দিনে। এখানে থেকেই শুরু সিনেমার কাহিনি। এই গল্পের বাইরেও ছবিতে আরও একটি কাহিনি আছে। যেখানে রয়েছে কলেজের একটা গ্রুপ।”

পড়ুন: ‘নমস্তে লন্ডন’এর সিক্যুয়ালে বাদ অক্ষয়-ক্যাটরিনা

ছবির প্রধান চরিত্রে বয়েছেন আবির চট্টোপাধ্যায়। আর তাঁর বান্ধবীর চরিত্রে দেখা যাবে পাওলি দামকে। নায়িকার কথায়, ” সিনেমায় আমার নাম শ্রেয়া। সে একজন বটানিস্ট। ওর এক্স বয়ফ্রেন্ড কৌশিক একজন স্পোর্টস ট্রেনার। কৌশিক কাউকে খুঁজতে খুঁজতে যেখানে শ্রেয়া থাকে সেখানে পৌঁছে যায়। তাদের দেখা হয়। এরপর আস্তে আস্তে রহস্যগুলির জট খুলতে থাকে।”

পড়ুন: OMG! বলিউডের এই অভিনেত্রী এখন পোল ডান্সার

আবির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ” ‘বেডরুম’-এর পর আবার আবিরের সঙ্গে কাজ করছি। টানা ৫ বছর পর। তবে একটা কথাই বলব আমরা খুব মজা করে কাজ করেছি”। ছবির কাহিনি নিয়ে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, ” রোমান্টিক-ডার্ক থ্রিলার ‘তৃতীয় অধ্যায়’। ছবিতে থ্রিলারের প্রায় সব গুণই আছে। স্ক্রিপ্ট খুবই স্ট্রং একটা সাবজেক্টের উপর লেখা হয়েছে। মনোজের সঙ্গে এটাই আমার প্রথম ছবি। যদিও এর আগেও চার অধ্যায় ও কাগজের বৌ ছবিতে অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসাবে কাজও করেছিল। এই প্রথমবার ওর সঙ্গে কাজ করে খুব ভালো লাগল। এখন শুধু অপেক্ষা করে রয়েছি নিজেকে পর্দায় দেখার জন্য।”