বার্মিংহ্যাম: জল্পনার অবসান ঘটিয়ে একইসঙ্গে দেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের প্রত্যাশা পূরণ করে অবশেষে বিশ্বকাপের মঞ্চে আত্মপ্রকাশ ঘটল ঋষভ পন্তের। প্রাথমিকভাবে বিশ্বকাপের স্কোয়াডে পন্তের সুযোগ না মেলায় ভ্রু কুঁচকেছিলেন অনেকেই। টুর্নামেন্টের মাঝপথে ওপেনার শিখর ধাওয়ানের চোট সর্বোপরি বিজয় শংকরের নিরীহ পারফরম্যান্সে ভাগ্যে শিঁকে ছিঁড়ল পন্তের। তাই প্রাথমিকভাবে দলের বাইরে থেকেও শেষমেষ বিশ্বকাপে অভিষেকটা হয়েই গেল বছর একুশের পন্তের।

জিতলেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত। এমন অবস্থায় ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিজয় শংকরের পরিবর্তে ব্যাটিং অর্ডারে ৪ নম্বর হিসেবে সুযোগ পেলেন পন্ত। দলের তরফ থেকে জানানো হয় পায়ের আঙুলে কিছু সমস্যার কারণে বাইরে রাখা হয়েছে অল-রাউন্ডার বিজয় শংকরকে। তবে রবিবাসরীয় এজবাস্টনে টসের পর কোহলির মুখে শংকরের পরিবর্তে পন্তের অন্তর্ভুক্তির খবর ঘোষণা হতেই শব্দব্রহ্মে কেঁপে ওঠে এজবাস্টনের গ্যালারি। এতেই পরিষ্কার একাদশে পন্তকে দেখতে কতটা মুখিয়ে ছিলেন দেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা।

আরও পড়ুন: পেনাল্টি মিস সুয়ারেজের, কোপা থেকে ছিটকে গেল উরুগুয়ে

উল্লেখ্য অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে শতরান করলেও বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে চোটের কারণে টুর্নামেন্টে অনিশ্চিত হয়ে পড়েন শিখর ধাওয়ান। ‘কভার’ হিসেবে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পন্তকে। তবে প্রথমদিকে দলের সঙ্গে থাকার বা অনুশীলনের অনুমতি না থাকলেও ধাওয়ান টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যেতেই দলের সঙ্গে যোগ দেন তিনি। তবে ধাওয়ানের পরিবর্তে কেএল রাহুল রোহিত শর্মার সঙ্গে ওপেন করায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ অবধি ৪ নম্বরে শংকরেই আস্থা রেখেছিল দল। তবে ৩ ম্যাচে মাত্র ৫৮ রান ও পাকিস্তান ম্যাচে ২টি উইকেট ছাড়া শংকরের পারফরম্যান্স নিয়ে বলার মত কিছুই ছিল না।

আরও পড়ুন: প্রথম কিউয়ি ক্রিকেটার হিসাবে বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিক বোল্টের

তাই কেরিয়ারের ষষ্ঠ ওয়ান ডে-তেই বিশ্বকাপ অভিষেকের সুযোগ মিলে গেল পন্তের। এখনও অবধি কেরিয়ারে ৫টি ওয়ান ডে-তে পন্তের রানসংখ্যা তিন ৯৩। অর্ধশতরান নেই। এমন অবস্থায় বিশ্বকাপের অভিষেক ম্যাচে টিম ম্যানেজমেন্টের আস্থা মর্যাদা কতটা দিতে পারেন তিনি, এখন সেটাই দেখার। যদিও ম্যাচের আগেরদিন কোচ রবি শাস্ত্রী ও দলনায়ক বিরাটকে শংকরেই আস্থা রাখার পরামর্শ দিয়েছিলেন প্রাক্তন ইংরেজ তারকা কেভিন পিটারসন। তাঁর মতে পন্তের বিশ্বকাপ একাদশে সুযোগ পেতে এখন তিন সপ্তাহের অনুশীলন প্রয়োজন।

অন্যদিকে ১৯৮৩ ভারতের বিশ্বজয়ী দলের সদস্য কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত যদিও ইংল্যান্ডের আবহাওয়ার কথা মাথায় রেখে শংকরের পরিবর্তে পন্তকেই সুযোগ দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন আইসিসি’র কলামে।