আমদাবাদ: প্রথমবার ডে-নাইট টেস্ট খেলতে নামছেন৷ তার আগে নতুন বন্ধুর সঙ্গে সতীর্থদের পরিচয় করিয়ে দিলেন ঋষভ পন্ত৷ মোতেরায় বুধবার থেকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পিঙ্ক বল টেস্ট খেলতে নামছে ভারত৷ প্র্যাকটিসে তাঁর ভালোবাসার ‘স্পাইডি’র সঙ্গে অন্যদের পরিচয় করিয়ে দেন টিম ইন্ডিয়ার উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷

‘স্পাইডার-ম্যান’এর প্রতি তাঁর ভালোবাসা অনেকেরই জানা৷ অস্ট্রেলিয়া সফরে পন্তের গলায় স্পাইডারম্যান স্পাইডারম্যান গান ভাইরাল হয়েছিল৷ জিম সেশনে তখন থেকেই পন্তের ডাক নাম হয়ে যায় স্পাইডারম্যান৷ সুপারহিরোর প্রতি তাঁর ভালোবাসার কথা ধীরে ধীরে প্রকাশ পায়৷ এবার ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চলতি সিরিজে স্পাইডি’র প্রতি তাঁর প্রেম প্রকাশ্যে এল৷ মোতেরায় টিম ইন্ডিয়ার নেট সেশনে স্পাইডি’র সঙ্গে অন্যদের পরিচয় করিয়ে দেন পন্ত৷

সোশাল মিডিয়ায় তার ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে পন্ত লেখেন, “I’ve spent a lot of time behind the stumps, thought of taking in a new view at the nets today! Meet my new friend, I call him spidey”৷ পন্তের এই ‘Spidey’ আসলে ড্রোন৷ শেষ চারটি টেস্টে হাফ-সেঞ্চুরি করে দারুণ ফর্মে রয়েছেন ভারতীয় দলের এই তরুণ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷

সম্প্রতি প্রথমবার আইসিসি-র Player of the Month পুরস্কার জিতেছেন পন্ত৷ বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা আইসিসি-র তরফে জানুয়ারি মাসের সেরা পুরুষ ক্রিকেটার পন্তকে অভিনন্দন জানানো হয়৷ ২০২১ থেকে শুরু হয়েছে মাসের সেরা ক্রিকেটার পুরস্কার৷ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে প্রতি মাসে সেরা পুরুষ ও মহিলা ক্রিকেটারকে বেছে নেওয়া হবে৷ জানুয়ারি মাসের সেরা পুরুষ ক্রিকেটারের দৌড়ে ভারতীয় উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের সঙ্গে ছিলেন ইংল্যান্ড টেস্ট অধিনায়ক রুট এবং আয়ারল্যান্ড ব্যাটসম্যান পল স্টার্লিং৷ কিন্তু এই দু’জনকে পিছনে ফেলে ঐতিহাসিক Player of the Month পুরস্কার জিতে নেন পন্ত৷

অস্ট্রেলিয়া সফরের পাশাপাশি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চলতি টেস্ট সিরিজে দারুণ ফর্মে রয়েছেন পন্ত৷ চিপকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে ৯১ এবং দ্বিতীয় টেস্টে ৫৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন তিনি৷ প্রথম টেস্টে ভারত হারলেও দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সিরিজে সমতা ফেরায় ভারত৷ বুধবার মোতেরায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় তথা পিঙ্ক বল টেস্ট খেলছে নামছে ভারত ও ইংল্যান্ড৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।