হায়দরাবাদ: এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেটের ‘গ্লোডেন বয়’ ঋষভ পন্ত৷ এই গ্লোডেন বয়ের হাতেই এবারের আইপিএল নেতৃত্ব তুলে দিয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালস৷ আইপিএলের ইতিহাসে পঞ্চম কনিষ্ঠ ক্যাপ্টেন হিসেবে নেতৃত্ব দেবেন পন্ত৷ ১০ এপ্রিল মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে তিনবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে আইপিএলে নেতৃত্বে অভিষেক হবে পন্তের৷ অর্থাৎ ২০১১ ভারতের বিশ্বকাপের জয়ের মাঠে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির সঙ্গে প্রথমবার টস করতে নামবেন দিল্লির এই তরুণ তুর্কি৷

শুধু আইপিএল নয়, পন্তকে ভবিষ্যতে ভারতের ক্যাপ্টেন মনে করছেন মহম্মদ আজহারউদ্দিন৷ প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের মতে, ভবিষ্যতে ভারতের নেতৃত্ব পন্তের হাতে উঠলেও অবাক হবেন না তিনি৷ বুধবার টুইটারে পন্তের ক্যাপ্টেন্সি নিয়ে আজহার লেখেন, ‘গত মাসে ঋষভ পন্ত দুর্দান্ত৷ তিন ফর্ম্যাটেই নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছে৷ নির্বাচকরা অদূর ভবিষ্যতে ওকে নেতৃত্বের দৌড়ে নিয়ে এলেও আমি অবাক হব না৷ ওর আক্রমণাত্মক ক্রিকেট ভারতকে অন্য মাত্রায় নিয়ে যেতে পাবে৷’

মঙ্গলবার রাতেই নতুন ক্যাপ্টেনের নাম ঘোষণা করেছে দিল্লি ফ্র্যাঞ্চাইজি৷ টুইটারে দিল্লি ক্যাপিটালস তাদের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে লেখে, “Rishabh Pant will be our Captain for #IPL2021.” অর্থাৎ চোটের জন্য আইপিএল থেকে ছিটকে যাওয়া শ্রেয়স আইয়ারের পরিবর্তে এবারের আইপিএলে দিল্লিকে নেতৃত্বে দেবেন পন্ত৷

নেতা হওয়ার পর পন্তের প্রথম প্রতিক্রিয়া ছিল, ‘দিল্লিতে আমি বড় হয়েছি৷ ছ’ বছর আগে এখানেই আমার আইপিএল জার্নি শুরু হয়েছিল৷ এই দলকে নেতৃত্ব দেওয়া আমার কাছে স্বপ্ন ছিল৷ আজ সেই স্বপ্ন সত্যি হল৷ দলের মালিকের কাছে আমি কৃতজ্ঞ৷’ দলের কোচিং স্টাফের প্রশংসা করে পন্ত আরও বলেন, ‘দুর্দান্ত কোচিং স্টাফ রয়েছে৷ দলে অনেক সিনিয়র ক্রিকেটার রয়েছে৷ দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে আমার সেরাটা দিতে আমি আর অপেক্ষা করতে পারছি না৷’

কিন্তু কয়েক মাস আগেও ফর্মের কারণে টিম ইন্ডিয়ার সীমিত ওভারের দলে ব্রাত্য ছিলেন পন্ত৷ কিন্তু সিডনি টেস্টে দুর্দান্ত ইনিংস খেলে ম্যাচ ড্র করার পর নব জন্ম হয় পন্তের৷ তারপর ব্রিসবেন টেস্টে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলে বিশ্বক্রিকেটে জনপ্রিয়তা কুড়ান বছর তেইশের এই তরুণ৷ গত জানুয়ারিতে আইসিসি-র প্রথম ম্যাচের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জেতেন পন্ত৷ তারপর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে দুর্দান্ত ব্যাটিং করে ভারতের সিরিজ জয়ে বড় ভূমিকা নেন তরুণ এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.