নয়াদিল্লি: আগের তুলনায় সহজ হচ্ছে প্যান (পার্মানেন্ট অ্যাকাউন্ট নাম্বার ) কার্ড পাওয়া৷ কারণ এখন আর আবেদনের সময়  কাউকে একগুচ্ছ পরিচয়পত্র জমা দেওয়ার দরকার হবে না৷ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ভোটার কার্ড (এপিক ) অথবা আধার কার্ডই তাঁর পরিচয়পত্র হিসাবে গণ্য করা হবে৷ এ বিষয়ে সম্প্রতি একটি নির্দেশিকা দিয়েছে আয়কর দফতরের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণকারী কেন্দ্রীয় প্রত্যক্ষ কর পর্ষদ (সিবিডিটি )৷

ওই নির্দেশিকা অনুসারে প্যান কার্ড পেতে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির  ভোটার কার্ড এবং আধার কার্ড বয়সের প্রমাণ হিসাবে গণ্য হবে৷ বর্তমানে এই দুই সচিত্র পরিচয়পত্র সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিচিতি এবং তাঁর বসবাসের ঠিকানার প্রমাণ হিসাবে গৃহীত হত , বয়সের প্রমাণ হিসাবে নয়৷

আয়কর দফতরের এক শীর্ষ আধিকারিক  জানান, নতুন নির্দেশিকায় খুব সহজভাবে এটাই জানানো হয়েছে যে এখন থেকে এপিক বা আধারের কোনও একটি থাকলেই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি প্যান কার্ড পাওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন৷ এই দুই পরিচয়পত্র সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিচিতি , ঠিকানা এবং জন্ম তারিখের প্রমাণ হিসাবে গ্রাহ্য হবে৷ এর ফলে প্যান কার্ড পাওয়ার জন্য যে কষ্টকর প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে গ্রাহকদের যেতে হত তার হাত থেকে তাঁরা নিষ্কৃতি পাবে৷ এপিক এবং আধার প্যান কার্ড পাওয়ার যাবতীয় চাহিদা পূরণ করবে৷

ওই আধিকারিকটি জানান , প্যান কার্ড পাওয়ার জন্য আগের ৮টি পরিচয় পত্রের বদলে এখন ১২টি পরিচয় পত্রের যে কোনওটি ব্যবহার করা যেতে পারে৷ তবে , সরকারি কর্মচারী নন এমন সাধারণ ব্যক্তির জন্য এপিক বা আধার প্রয়োজন হবে ৷ সরকার এপিক , আধার এবং প্যান , এই তিন পরিচয়পত্রকে এক প্ল্যাটফর্মে আনার এবং এই সংক্রান্ত তথ্যাবলীর মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনের যে লক্ষ্য নিয়েছে তা পূরণ করতেই এই ব্যবস্থা৷