শ্রীনগর: পায়রাকে প্রশিক্ষণ দিয়ে চরবৃত্তি করানোর অভিযোগ। পাকিস্তানের নয়া ফাঁদ ধরে ফেলল ভারত। সোমবার জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলায় একটি পায়রা সন্দেহজনকভাবে উড়তে দেখা যায়। সীমান্তের কাছ দিয়েই উড়ছিল পায়রাটি। সেটিকে ধরে ফেলেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

পরে দেখা যায়, পায়রাটির পায়ে সুতো দিয়ে বাঁধা কিছু সংকেত। যার ভাষা এখনও বোঝা যায়নি। পায়রাটিকে ধরে ফেলে পুলিশের হাতে তুলে দেন মনইয়ারি গ্রামের হিরানগর সেক্টরের বাসিন্দারা। পুলিশ সূত্রে খবর এই পায়রাটি পাকিস্তানের দিক থেকে উড়ে এসেছে। পাক সেনা দ্বারা সেটি প্রশিক্ষিত বলেও মনে করা হচ্ছে। ভারতীয় গোয়েন্দারা আপাতত ওই সংকেত সূত্র সমাধানে ব্যস্ত।

কাঠুয়া জেলার পুলিশ সুপার শৈলেন্দ্র মিশ্র জানান, পায়রাটির পায়ে একটি আংটি জাতীয় বস্তু ছিল। সেখানেই বেশ কয়েকটি নম্বর লেখা ছিল। নম্বরগুলির আসল অর্থ কি, তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চালাচ্ছেন ভারতীয় গোয়েন্দারা।

এদিকে, সোমবার সকালেই ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সীমান্ত। জম্মু কশ্মীরের কুলগামে জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পায় সেনা। সূত্র মারফত পাওয়া খবরের ভিত্তিতে এলাকায় অভিযান চালায় সেনাবাহিনী। ৩৪ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস, সিআরপিএফ ও পুলিশের যৌথ বাহিনী অভিযানে যায় এলাকায়। গুলির লড়াইয়ে নিহত হয় লস্করের শীর্ষ নেতা -সহ ২ জঙ্গি।

কুলগামের মঞ্জগ্রামে জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পায় সেনা। এলাকায় যায় যৌথ বাহিনী। এলাকা ঘিরে জঙ্গিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়। বেশ কয়েকটি বাড়ি ঘিরে ফেলতেই আচমকা জওয়ানদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে জঙ্গিরা। পালটা গুলি চালান জওয়ানরাও।

সেনার গুলিতে নিহত হয় দুই জঙ্গি। জানা গিয়েছে, সেনার গুলিতে লস্কর-এ-তইবা জঙ্গি সংগঠনের এক শীর্ষনেতা নিহত হয়েছে। গত কয়েক বছরে কাশ্মীরের একাধিক নাশকতায় নিহত জঙ্গিনেতা যুক্ত ছিল বলে সেনার তরফে জানানো হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ