করাচি: আকাশসীমা লঙ্ঘন করা হলে আমেরিকাসহ যেকোনও দেশের ড্রোনকে গুলি করে নামিয়ে নেওয়ার হুমকি দল পাকিস্তান৷ পাক সেনাকে ইতিমধ্যেই নির্দেশও দিয়ে দিয়েছে সে দেশের সরকার৷ সম্প্রতি, বিভিন্ন ইস্যুতে ওয়াশিংটন-ইসলামাবাদের মধ্যে সম্পর্কে যখন টানাপড়েন চলছে তখন পাকিস্তানের এই ঘোষণা আন্তর্জাতিক মহলে আলোচনা শুরু হয়েছে৷

পাকিস্তান বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল সোহেল আমান তার বাহিনীকে এমনই নির্দেশ দিয়েছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশ্যে আসার পর শুরু হয়েছে জল্পনা৷ খোদ আমেরিকার মতো একটি দেশকে হুমকি দেওয়ার পেছনে কি চিনা মদত রয়েছে? উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন৷

ড্রাম নামিয়ে নেওয়ার প্রসঙ্গে আমান বলেন, ‘‘আমরা কাউকেই আমাদের আকাশসীমা লঙ্ঘন করতে দেব না৷ বিমানবাহিনীকে বলেছি, এমন ঘটনা ঘটলে দ্রোণগুলিকে গুলি করে মাটিতে নামাতে৷ দেশের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা বিপন্ন করে যদি মার্কিন ড্রোন আকাশসীমা লঙ্ঘন করে তবে তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না৷’’

এর আগে পাক বাহিনী তার ভূখণ্ডে কোনও মার্কিন ড্রোন হামলার বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে নিন্দা জানালেও সেগুলিকে ভূপাতিত করার কোনও নির্দেশ দেয়নি৷ ঘটনাচক্রে আফগানিস্তানের সীমান্তের কাছে পাকিস্তানের একটি উপজাতি অধ্যুষিত এলাকায় সপ্তাহ দু’য়েক আগে মার্কিন ড্রোন জঙ্গিদের একটি গোপন আস্তানায় হামলা চালিয়েছিল৷ এতে তিন জঙ্গির মৃত্যু হয়৷ এরপরই মার্কিন ড্রোন ভূপাতিত করা নির্দেশ দিল পাকিস্তান বিমানবাহিনী৷