লাহোর: নারী নিরাপত্তা যে শুধু ভারতেই আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে এমন কিন্তু নয়। সারা পৃথিবী জুড়ে নারীদের ওপর ঘটে চলেছ নানান অত্যাচার। সীমা অতিক্রম করেছে ধর্ষণ, খুনের মত নারকীয় কাণ্ডগুলি। এবার ঘটনাস্থল পড়শী রাষ্ট্র পাকিস্তান। সে দেশে কমপক্ষে ৬২৯ জন মেয়ে এবং মহিলাকে কনে হিসেবে বিক্রি করে দেওয়া হয়েছিল চিনা নাগরিকদের কাছে।

পাকিস্তানি গোয়েন্দাদের তরফে এ ব্যাপারে নিশ্চিত করা হয় যে, ৬২৯ জন মহিলাকে চিনে পাচার করা হয়েছিল। শেষ ১৮ মাস ধরে এই কাজ চলেছে বলে জানানো হয়েছে। পাক গোয়ান্দারা এই পাচার চক্রের মেরুদণ্ড ভেঙে ফেলতে বদ্ধপরিকর ছিল।

উল্লেখ্য, ২০১৮-এর এই তথ্য মহিলা পাচারের ক্ষেত্রে পাকিস্তানে ভয়াবহ। এ বছরের অক্টোবরে সামনে এসেছিল এক পাচার চক্রের কথা যেখানে ৩১ জন চিনা নাগরিক পাচারের সঙ্গে যুক্ত ছিল বলে অভিযোগ ওঠে।

এক পাক অফিসার জানিয়েছেন, “এই মেয়েদের জন্য কেউ কিছু করছে না। পুরো পাচারচক্রের কাজ আরও বাড়ছে। কারণ, তাঁরা জানে, বিপদে পড়লেও তাঁরা বেঁচে যেতে পারবে। ” পাশাপাশি তিনি জানান, তদন্তকারীরা যাতে তদন্ত না করেন, তাঁদের ওপর সেইরকমই চাপ দেওয়া হয়ে থাকে। ফলে বাড়ছে পাকিস্তানের মহিলা পাচার।