নয়াদিল্লি: ফের ইন্ডিয়ান কোস্ট গার্ডের তৎপরতায় ধরা পড়ল বিপুল পরিমাণ মাদক৷ সংবাদ সংস্থা এএনআই-এ প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ভারতীয় জলসীমায় ঢুকে পড়া এই পাকিস্তানি বোটে ছিল ১৯৪ প্যাকেট নারকোটিক্স৷ এইসব কিছু বাজেয়াপ্ত করে ভারতের উপকূলীয় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী৷ পাক বোটটিও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷

কি উদ্দেশ্যে তারা এই বিপুল পরিমাণ মাদক নিয়ে প্রবেশ করেছিল, কোথায় যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল, কে কে রয়েছে এর পিছনে, এই সমস্ত প্রশ্ন উঠে আসছে৷ চলছে অনুসন্ধানও৷

প্রসঙ্গত, এর আগে মার্চের শেষ সপ্তাহে পাকিস্তান থেকে মাদক পাচারের ছক বানচাল করে এটিএস উপকূলরক্ষাবাহিনী৷ প্রমাণ লোপাট করতে নৌকায় বিস্ফোরণ ঘটানো হয়৷ বিস্ফোরণ সত্ত্বেও নষ্ট হয়নি সেই মাদক, জানায় পুলিশ৷

এএনআই সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, পোরবন্দরে মাঝসমুদ্রে আটক ড্রাগ ভর্তি নৌকা আটক করে এটিএস উপকূলরক্ষাবাহিনী৷ প্রমাণ লোপাটের জন্যই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়৷ তবে সেই বিস্ফোরণে বিশেষ লাভ হয়নি৷ প্রায় ৫০০ কোটির মাদক উদ্ধার করা হয়, সেই সঙ্গে গ্রেফতার করা হয় ৯ জনকে৷

এই ঘটনায় এটিএসের সঙ্গে ছিল ভারতীয় উপকূলরক্ষাবাহিনীও৷ ৯ ইরানি নাগরিকদের তারা ধরে, ১০০ কিলোগ্রাম হেরোইন উদ্ধার হয়৷ পোরবন্দরে ড্রাগভর্তি এই বোট আটকাতে তৎপর হতেই গুজরাত এটিএসের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে মাদক পাচারকারীদের৷ প্রায় ৫০০ কোটির মাদক উদ্ধার হয় এই বোট থেকে৷ শোনা যায়, এই বোটটি পাকিস্তানে হামিদ মালিক পাঠিয়েছিল৷