টনটন: ১২ জুন টনটনে সম্মুখসমরে পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া দুই দল। বিশ্বকাপের মঞ্চে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে এশীয় শক্তিটি মুখোমুখি হওয়া মানেই সবসময় একটা আলাদা মাত্রা বহন করে। স্বাভাবিকভাবেই মুখিয়ে থাকেন মুখিয়ে থাকেন অনুরাগীরাও। তবে বুধবাসরীয় টনটনে ভারতিয় সমর্থদের মত ভুলের পথে হাঁটবেন না তাঁর দেশের সমর্থকেরা। জানালেন পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

গত ৯ জুন লন্ডনের কেনিংটন ওভালে ভারত-অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দ্বৈরথের মাঝেই প্রশংসা কুড়িয়ে নেয় ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির একটি উদ্যোগ। যেখানে দেখা যায় স্যান্ডপেপার গেট কান্ডের বিতর্কিত নায়ক স্টিভ স্মিথকে উদ্দেশ্য করে গ্যালারি থেকে বিদ্রূপ করতে থাকেন ভারতীয় সমর্থকেরা। যা দেখেশুনে চুপ থাকেননি বিরাট। সমর্থকদের উদ্দেশ্যে হাত নেড়ে জানান, বিদ্রূও বন্ধ করো বরং করতালি দিয়ে অভিবাদন জানাও তাঁকে।

বুধবারের ম্যাচেও গ্যালারি থেকে স্মিথ কিংবা ওয়ার্নারকে কে উদ্দেশ্য করে যদি টিপ্পনী ছুঁড়ে দেয় পাক সমর্থকেরা তাহলে আপনিও কি কোহলির মতোই ভূমিকা পালন করবেন। উত্তরে পাক দলনায়ক সরফরাজ আহমেদ জানান, আমার মনে হয় না পাক সমর্থকেরা এমন কিছু করবে বলে। ম্যাচের আগেরদিন অর্থাৎ মঙ্গলবার এবিষয়ে পাক অধিনায়ককে প্রশ্ন করা হলে কারণ হিসেবে সরফরাজ জানান, ‘পাকিস্তানের মানুষ ক্রিকেট ভালোবাসে। তারা সমর্থন করতে পারে এবং ক্রিকেটারদের ভালোবাসতে জানে।’

একইসঙ্গে গত মার্চে আমিরশাহিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ০-৫ ব্যবধানে হারের প্রভাব বুধের ম্যাচে পড়বে না বলে জানান পাক অধিনায়ক। এই প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মঙ্গলবার সরফরাজ বলেন, ‘দ্বিপাক্ষিক সিরিজের ফলাফল এখন অতীত। আমরা আগামীকালের ম্যাচ নিয়ে ভাবছি। আমাদের লক্ষ্যটা ভীষণই পরিষ্কার এবং আমরা নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দেবো।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে বিরাট ব্যবধানে হেরে চলতি বিশ্বকাপে অভিযান শুরু হলেও আয়োজক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে দুরন্ত বাউন্স-ব্যাক করেছে ‘৯২ বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। স্বাভাবিকভাবেই ‘অনিশ্চিত’ পাকিস্তানকে নিয়ে জোর চর্চা নেটিজেনদের মধ্যে। এরপর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে পাকিস্তানের তৃতীয় ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়। চতুর্থ ম্যাচে বুধবার ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি তাঁরা। চতুর্থ ম্যাচেও বৃষ্টির ভ্রূ-কুটি থাকায় পাক দলনায়ক জানান, ‘প্রকৃতিরকে নিয়ন্ত্রণে আনা কারও পক্ষে সম্ভব নয়। কিন্তু ম্যাচ যদি সংক্ষিপ্ত হয় সেক্ষেত্রে নিশ্চয় পরিকল্পনা পরিবর্তন হবে আমাদের।’