নয়াদিল্লি: রক্তাক্ত হয়েছিলেন পাক সেনার মারে৷ তবু মুখ খোলেননি৷ সমানে মার খেলেও পাকিস্তানি সেনার সামনে তাঁর নির্ভীক জবাব ছিল ”I Am Not Supposed To Tell You That” মন জিতে নিয়েছিল সবার। বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমান স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন ভারতের ভাবমূর্তি৷ কোনও পরিস্থিতিতেই নত হওয়া নয়৷ শিরদাঁড়া সোজা রেখে শত্রুর চোখে চোখ রাখে ভারতীয় সেনা৷ সেখানে পাকিস্তান কে?

তবে অভিনন্দনের ওপরের সেই অত্যাচার ভোলেনি ভারতীয় সেনা৷ সুযোগের অপেক্ষায় ছিল৷ সুযোগ এল৷ মধুর প্রতিশোধ নিল ভারত৷ যে পাক সেনা পাকরাও করেছিল অভিনন্দন বর্তমানকে৷ তাঁর ওপর অকথ্য অত্যাচার চালিয়েছিল, মারের পর মারে রক্তাক্ত করেছিল বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডারকে, তাকে নিকেশ করল সেনা৷

আরও পড়ুন : ভারতের বিরুদ্ধে সুর নরম করুন, কাশ্মীর ইস্যুতে ইমরানকে ফোনে বার্তা ট্রাম্পের

রিপোর্ট জানাচ্ছে, পাকিস্তান সেনার স্পেশাল সার্ভিস গ্রুপের সুবেদার আহমেদ খানকে মারল ভারতীয় সেনা৷ ১৭ই অগাষ্ট কাশ্মীরের নাকয়াল সেক্টরে সেনার গুলিতে খতম হয় আহমেদ৷ সেনা সূত্রে খবর ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছিল এই আহমেদ৷ তখনই সেনার গুলিতে সেখানেই নিকেশ করে দেয় তাকে৷

জানা গিয়েছে, নৌসেরা, সুন্দেরবেণী ও পাল্লান ওয়ালা সেক্টরে অনুপ্রবেশে সাহায্য করত এই আহমেদ খান৷ অনুপ্রবেশ করার জন্য পাক সেনা বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দিয়েছিল আহমেদকে৷ ২৭শে ফেব্রুয়ারি পাকিস্তান যখন বন্দি অভিনন্দনের ছবি প্রকাশ করেছিল, তখনই তাঁর পিছনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল এই সুবেদার খানকে৷

আরও পড়ুন : পাকিস্তানকে লাল চোখ দেখিয়ে হাইড্রোজেন বোমা তৈরি করিয়েছিলেন রাজীব

শুধু তাই নয়, সূত্র জানাচ্ছে, খান জইশ জঙ্গিদের কাশ্মীরে ঢোকার পথ বাতলে দিত৷ প্রয়োজনে নানাভাবে সাহায্য করত অনুপ্রবেশের জন্য৷ পাক সন্ত্রাস যাতে উপত্যকায় ছড়িয়ে পড়ে, তার প্রধান হাতিয়ার ছিল এই সুবেদার খান৷ যাকে নিকেশ করেছে ভারতীয় সেনা৷

উল্লেখ্য, বালাকোটে ভারতে এয়ার স্ট্রাইকের পরের দিনই সীমান্ত পেরিয়ে ভারতের দিকে ধেয়ে আসে পাকিস্তানের যুদ্ধবিমান F-16। আর সেই সময় যে সাফল্যের পরিচয় দিয়েছেন দেশবাসীর কাছে, তাতে অভিনন্দনকে ভুলতে পারেননি কেউ। তাঁর পাকিস্তানে বন্দি হওয়ার দিনটিতে ভারতবাসীর হৃদয় জুড়ে ছিল টানটান উত্তেজনা।