ফাইল ছবি

শ্রীনগর: সোমবার সকালে ফের গুলির শব্দে ঘুম ভাঙল উপত্যকার৷ জম্মু কাশ্মীরের রাজৌরি সেক্টরে সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান৷ এদিন ভারতীয় সেনাছাউনি লক্ষ্য করে পাক সেনা গুলি বর্ষণ করে বলে খবর৷ শুরু হয় শেলিং, মর্টার হানা৷ সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর এক ভারতীয় সেনা জওয়ান শহিদ হয়েছেন৷

রাজৌরি সেক্টরের সুন্দেরবানি এলাকায় সোমবার সকাল সোয়া সাতটা নাগাদ নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গুলির লড়াই শুরু হয়৷

ফাইল ছবি

শুধু সোমবারই নয়, এর আগে রবিবার সন্ধে সাড়ে ছটা নাগাদ পাকিস্তান গুলি চালায়৷ প্রত্যুত্তর দেয় ভারতীয় সেনাও৷ বুধবারও বিনা প্ররোচনায় পাকিস্তান ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে পুঞ্চ সেক্টরে গুলি চালায়৷ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি৷

এদিকে, ভারতীয় গোয়েন্দাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা ISI-এর পরিকল্পনায় তৈরি হচ্ছে নতুন করে হামলার ছক। তার জন্য একজোট করা হয়েছে জইশ-ই-মহম্মদ ও তালিবানকে। গোয়েন্দা রিপোর্ট বলছে, বালাকোট এয়ার স্ট্রাইকের অনেক আগে জইশ, তালিবান ও হাক্কানি নেটওয়ার্ক এক গোপন মিটিং করেছে।

ফাইল ছবি

পাশাপাশি, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বায়ুসেনা বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক চালানোর পরের দিন অর্থাৎ ২৭ তারিখ ভারতের আকাশে চলে আসে পাক বিমান। কয়েক মিনিটের আকাশ যুদ্ধ বেঁধে গিয়েছিল সীমান্তের আকাছে। ভারতের সেনা ঘাঁটিগুলি টার্গেট করেই পাকিস্তান ওই অভিযান চালিয়েছিল বলে জানিয়েছে বায়ুসেনা।

এরপর ভারতের বিমান তাড়া করে পাক বিমানকে। সেই ঘটনার সময়ই পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মাটিতে গিয়ে পড়েছিল উইং কমান্ডার অভিনন্দনের মিগ বিমান। পাকিস্তানের ৫৫ ঘণ্টা বন্দি থাকার পর তাঁকে ভারতে ফিরিয়ে আনা হয়।