নয়াদিল্লি: বালাকোটে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অভিযান চালানোর দু সপ্তাহ কেটে গিয়েছে৷ জইশ ই মহম্মদের ঘাঁটি লক্ষ্য করে বিমান হানা চালিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা৷ সেই বিমানহানায় কি আতঙ্কিত পাকিস্তান? ভারত সীমান্তে পাকিস্তানের সন্দেহজনক কার্যকলাপ কিন্তু সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে৷

ভারতীয় বায়ুসেনা সূত্রে খবর, পাকিস্তানের মুশাফ বায়ুসেনা ঘাঁটি বরাবর নয়া কৌশল সাজাচ্ছে তারা৷ দেখা গিয়েছে F-16 ফাইটার জেটের নতুন স্কোয়াড্রন মোতায়েন করার কাজ শুরু হয়েছে৷ এই স্কোয়াড্রনের নাম রাখা হয়েছে ‘অ্যাগ্রেসর’৷ সূত্রের খবর অ্যাগ্রেসর পাক বায়ুসেনায় নাম্বার ২৯ হিসেবেই পরিচিত৷

এই স্কোয়াড্রনের মোট ৮টি F-16 ফাইটার জেট রাখা হয়েছে৷ আপদকালীন যে কোনো পরিস্থিতিতে যা ঝাঁপিয়ে পড়বে নিজের দেশকে সুরক্ষা দিতে৷ পাক বায়ুসেনা জানাচ্ছে, ভারতের তরফ থেকে কোনও প্ররোচনামূলক আচরণের যোগ্য জবাব দেবে এই F-16 ফাইটার জেটগুলি৷ মুশাফ এয়ারবেসে আগে থেকেই F-16 ফাইটার জেট মোতায়েন করা ছিল, সেই সংখ্যা নতুন করে বাড়াচ্ছে পাকিস্তান৷

পাকিস্তানের মুশাফ এয়ারবেস সেদেশের পুরোন ঘাঁটিগুলির মধ্যে একটি৷ বর্তমানে পাকিস্তানের ৩০টি স্কোয়াড্রন রয়েছে, যেখানে ভারতের হাতে রয়েছে ৩৪টি স্কোয়াড্রন৷ পাশাপাশি, ভারতের ঝুলিতে থাকা MiG 21 ও MiG 27 বাদ দিলে ৩৩টি স্কোয়াড্রন থাকবে ভারতের হাতে৷ সূত্রের খবর ভারতের হাতে মোট ৪২টি স্কোয়াড্রন থাকলে তবেই পাকিস্তান ও চিনের সঙ্গে একযোগে মোকাবিলা সম্ভব৷ তবে যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবিলা করার ক্ষমতা রয়েছে ভারতের, বার বার সেকথা বলে আশ্বস্ত করেছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত৷