নটিংহ্যাম: বিশ্বকাপের ঠিক আগে পরিবেশ ও পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে ইংল্যান্ড সফরে গিয়েছে পাকিস্তান৷ কিন্তু পাঁচ ওয়ান ডে সিরিজে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ খুঁইয়েছে সরফরাজ খানের দল৷ ট্রেন্টব্রিজে চতুর্থ ওয়ান ডে ম্যাচে ৩৪০ রান তুলেও হারে পাকিস্তান৷ তবে এদিন হারলেও টানা তিন ম্যাচে ৩৪০ বা তার বেশি রান তুলে রেকর্ড গড়ল ‘মেন ইন গ্রিন’৷

পাঁচ ওয়ান ডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ বৃষ্টির জন্য ভেস্তে যায়৷ কিন্তু তার পরের তিনটি ম্যাচেই বড় রান তোলে পাকিস্তান৷ যদিও একটি ম্যাচও জিততে পারেনি সরফরাজরা৷ সাউদাম্পটনে দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের ৩৭১ রানের জবাবে ৩৬১ রান তুলেছিল পাকিস্তান৷ বাঁ-হাতি ওপেনার ইমাম-উল হকের দুরন্ত শতরান স্বত্ত্বেও ১২ রানে ম্যাচ হারে তারা৷

ব্রিস্টলে তৃতীয় ওয়ান ডে-তে স্কোরবোর্ডে ৩৫৮ রান তুলেও জিততে পারেনি সরফরাজের দল৷ রান তাড়া করে ৬ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ইংল্যান্ড৷ আর শুক্রবার নটিংহ্যামে ৩৪০ রান তুলেও ম্যাচ ও সিরিজ হারে পাকিস্তান৷ রান তাড়া করে তিন উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় ইংল্যান্ড৷ জেসন রয়ের দুরন্ত সেঞ্চুরি ও বেন স্টোকসের ঝোড়ো হাফ-সেঞ্চুরির সাহায্যে ম্যাচ জিতে নেয় মর্গ্যান অ্যান্ড কোং৷

নটিংহ্যামে প্রথম ব্যাটিং করে বাবর আজমের দুরন্ত সেঞ্চুরিতে ভর করে সাত উইকেট ৩৪০ রান তুলেছিল পাকিস্তান৷ ১১২ বলে ১১৫ রান তোলেন আজম৷ এছাড়া ৫৯ রান করেন মহম্মদ হাফিজ৷ ২৬ বলে ঝোড়ো ৪১ রান করে শিক্ষানবিশের মতো হিট-উইকেট হয়ে সমালোচিত হন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক শোয়েব মালিক৷ ইংল্যান্ডের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেন টম কারেন৷ ১০ ওভারে ৭৫ রান খরচ করে ৪টি উইকেট তুলে নেন ইংরেজ পেসার৷ সিরিজের শেষ ওয়ান ডে রবিবার লিডসে৷ বিশ্বকাপে পাকিস্তান অভিযান শুরু করবে ৩১ মে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে৷

ব্রিস্টলে কেরিয়ারের সেরা ইনিংস খেলা ইমাম এদিন আহত ও অবসৃত হয়ে মাঠ ছাড়েন৷ মার্ক উডের ডেলিভারিতে কনুইয়ে চোট পান তিনি৷ যন্ত্রণায় মাটিতে পড়ে যান পাক ওপেনার। প্রাথমিকভাবে মাঠেই কিছুক্ষণ চিকিৎসা চলে তাঁর। কিন্তু উপশম না হওয়ায় দলের ফিজিওর সঙ্গে মাঠ ছাড়তে হয় তাঁকে। পরবর্তীতে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। করা হয় এক্স-রে। তারপর অবশ্য মাঠে ফিরে ব্যাটও করেন পাক ওপেনার৷