চণ্ডীগড়: সীমান্ত নয়, এবার প্রকৃতিকে হাতিয়ার করে ভারতের সঙ্গে শত্রুতা রক্ষা করেতে নেমেছে পাকিস্তান৷ একদিকে ভাসছে পঞ্জাবের সীমান্ত জেলা ফিরোজপুর৷ তৈরি হয়েছে বন্যা পরিস্থিতি৷ অন্যদিকে সব জেনেও ক্রমাগত জল ছাড়ছে পাকিস্তান৷

পাকিস্তানের ছাড়া জলে ভাসছে ভারতের পশ্চিম অংশ৷ পঞ্জাবের ফিরোজপুর রীতিমত সংকটে৷ সুতলেজ নদীর জলে বন্যায় ভাসছে এই জেলা৷ তবে তারপরেও পাকিস্তানের ছাড়া জল হু হু করে ঢুকছে ভারতের সীমা পেরিয়ে ফিরোজপুরে৷ ফলে ফিরোজপুর সংলগ্ন বেশ কয়েকটি গ্রাম এখন জলের তলায়৷

আরও পড়ুন : পাকিস্তানের গালে চড় মেরে মুসলিম দেশ থেকে সম্মান মোদীর : কেন্দ্র

রবিবার স্থানীয় প্রশাসন জানায়, পাকিস্তান জল ছাড়া বন্ধ না করলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে৷ ইতিমধ্যেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরকে নামানো হয়েছে দুর্গতদের উদ্ধারে৷ নেমেছে সেনাও৷ পঞ্জাব সীমানায় অবস্থিত তেণ্ডিওয়ালা গ্রামে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সবচেয়ে বেশি৷ ভেঙে গিয়েছে বাঁধের একাংশ৷ ফলে জল ঢুকছে সমানে৷ পঞ্জাব প্রশাসনের দাবি পাকিস্তান অধিক মাত্রায় জল ছাড়ার ফলেই এই অবস্থা৷

সুতলেজ নদী তীরবর্তী বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ ত্রাণের ব্যবস্থা করেছে স্থানীয় প্রশাসন৷ তৈরি রয়েছে স্বাস্থ্য দফতর৷ দ্রুত গতিতে শুরু হয়েছে ত্রাণ বিলি বলে খবর৷ ভেঙে পড়ার বাঁধের একাংশ বালির বস্তা দিয়ে মেরামতি শুরু করা হলেও, জলের তোড়ে তা ভেসে যাচ্ছে৷ তবে চেষ্টা চালাচ্ছে প্রশাসন৷

ফিরোজপুরের ডেপুটি কমিশনার চান্দের গেন্দ ও জেলা পুলিশ প্রধান বিবেকশীল সোনি জানান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সবরকম ভাবে চেষ্টা চালানো হচ্ছে৷ দিন কয়েক আগেই, ফিরোজপুর জেলার ১৭টি গ্রাম বন্যায় প্লাবিত হয়ে যায়৷ ফের ভারি বৃষ্টির সতর্কবার্তা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর৷