ইসলামাবাদ: ভারতের নতুন সরকারের সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত পাকিস্তান। এমনটাই জানালেন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি।

শনিবার এক ইফতারে উপস্থিত হয়ে একথা বলেন তিনি। বলেন, দুই দেশেরই উচিৎ মুখোমুখি বসে কথা বলা। এতে শান্তি স্থাপন সম্ভব বলে মনে করেন তিনি। মোদীর বিপুল আসনে জয়ের দু’দিন পরই এমন মন্তব্য করেন তিনি।

লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার একদিন আগেই বিশকেকে সাংহাই কো-অপারেশনের বৈঠকে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি ও ভারতের বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের মধ্যে কথা হয়। উভয়েই পরস্পরের খোঁজখবর নেন। কুরেশি সুষমাকে আলোচনার মধ্য দিয়ে সমস্ত সমস্যার সমাধানের জন্য পাকিস্তানের ইচ্ছার কথা জানান।

অন্যদিকে, সুষমা স্বরাজ পাক মন্ত্রী মাহমুদ কুরেশিকে মিষ্টি উপহার দেন। মাহমুদ কুরেশি এ সম্পর্কে বলেন, ‘সুষমাজির একটা অভিযোগ ছিল, আমরা নাকি মাঝে মাঝে খুব তিক্ততার ভাব নিয়ে কথা বলি। আমরা যাতে মিষ্টি কথা বলতে পারি, তার জন্য উনি মিষ্টিও নিয়ে এসেছিলেন। আমরাও সুষমাজিকে বুঝিয়ে দিয়েছি, আমরা আলোচনার মাধ্যমে সব সমস্যা মিটিয়ে ফেলতে চাই।’

এদিকে, রবিবার মোদীকে ফোন করলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বিদেশমন্ত্রকের তরফ থেকে এই খবর জানানো হয়েছে।

ট্যুইট করে আগেই নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন তিনি। এবার সরাসরি ফোন করে কথা বললেন ইমরান খান। বিপুল ভোটে জয়ের জন্য শুভেচ্ছা জানালেন তিনি।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি এদিন সন্ত্রাস মুক্ত পরিবেশ গড়ার জন্য ও দারিদ্র্য দূরীকরণে একসঙ্গে কাজ করার বার্তা দেন ইমরানকে।