নয়াদিল্লি: কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের বিদেশনীতি কাজ করছে না খুব একটা। চিন ছাড়া কোনও দেশই পাকিস্তানকে সেভাবে সমর্থণ করেনি। ফ্রান্সে গিয়েও সমর্থন পেয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। আর এবার ধরা পড়ল ডাহা মিথ্যা কথাও বলছে পাকিস্তান। শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের নামে মিথ্যা বিবৃতি প্রকাশ করেছে ইসলামাবাদ।

গত বুধবার একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি জারি করে পাকিস্তান। সেখানে বলা হয়, শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত পাক রাষ্ট্রদূত শাহদ আহমেদ হাসমত দেখা করেছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট সিরিসেনার সঙ্গে। তাঁকে কাশ্মীরের অবস্থা সম্পর্কে জানিয়েছেন হাসমত। ভারতের ‘অবৈধ’ কার্যকলাপের কথাও জানানো হয়েছে শ্রীলঙ্কাকে। কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের যে অভিযোগ পাকিস্তান বারবার করে আসছে, সেটাও বাদ যায়নি।

পাকিস্তানের দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে কী বলা হয়:

পাকিস্তানে দাবি, শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট সবকিছু শুনে জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন যাতে রাষ্ট্রসংঘের মতামত মেনেই কাশ্মীর পরিস্থিতির সমাধান করা হয়। আঞ্চলিক শান্তি স্থাপনে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কা প্রেসিডেন্ট। কাশ্মীর ইস্যুতে সার্ক সদস্য হিসেবে মধ্যস্থতা করতে চেয়েছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা কী বলছে:

পাকিস্তানের এই বিজ্ঞপ্তি অস্বীকার করেছে শ্রীলঙ্কা। তারা এই ধরনের কোনও মন্তব্য করেনি বলে জানিয়েছে। সিরিসেনার জবানিতে যে সব কথা বলা হয়েছে, তা আদৌ বলেননি সিরিসেনা।

পাক হাই কমিশনারের কথা শুনেছেন সিরিসেনা। পাকিস্তানের তরফ থেকে তাঁকে বলা হয় যেহেতু ভারত-পাকিস্তান দুই দেশের সঙ্গেই শ্রীলঙ্কার ভাল সম্পর্ক, তাই এই ইস্যু দেখা উচিৎ। তবে সিরিসেনা কোনও মন্তব্য করেননি।