ইসলামাবাদ: পাকিস্তানে স্বামীর তৃতীয় বিয়ের সময়ে রুখে দাঁড়ালেন প্রথম পক্ষের স্ত্রী। পাশাপাশি বিয়ের মণ্ডপে ঢুকে স্বামীকে এমন পেটালেন পরিস্থিতি সামলাতে সেশে পুলিশ ডাকতে হয়েছিল।

পাকিস্তানের এক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়া খবর অনুযায়ী করাচির সাখি হাসান চৌরঙ্গী এলাকায় সোমবার রাতে আসিফ রফিকের বিয়ের অনুষ্ঠানে মাদিহা নামের মহিলা তার আত্মীয়দের সঙ্গে নিয়ে চড়াও হয়েছিলেন। সেখানে তিনি জানিয়েছিলেন তার সঙ্গে আসিফের ২০১৪ সালে বিয়ে হয়েছিল।

এও জানান আসিফ জিন্না বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মীকে তাকে না জানিয়ে দ্বিতীয়বার বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু আসিফ তাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তার সঙ্গেই থাকবেন। কিন্তু আবারও বিয়ে করায় বিয়ের অনুষ্ঠানের মধ্যেই আসিফকে বেধড়ক মারতে শুরু করেন মাদিহা। এমনকি তার পরনের জামা কাপড় ছিরে দিয়েছিলেন। বাধ্য হয়ে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছিল। পুলিশ এসে আসিফকে নিয়ে গিয়েছিল। যদিও আসিফ জানিয়েছিলেন তিনি মাদিহাকে আইনত ডিভোর্স দিয়েছিলেন। এও জানিয়েছেন তিনি একসঙ্গে চারটি বিয়েও করতে পারেন। সে অধিকার তার রয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা