ইসলামাবাদ:  এখনও যুদ্ধের আশঙ্কা তাড়া করে বেড়াচ্ছে পাকিস্তানকে। সীমান্তবর্তী এলাকার উপর থেকে বিমান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বুধবার মধ্যরাতে নতুন করে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করেছে পাকিস্তান সিভিল অ্যাভিয়েশন অথোরিটি। নয়া এই নিষেধাজ্ঞা মোতাবেক কোনও বিমান এলওসির উপর দিয়ে যেতে পারবে না। অন্য কোনও রুট ব্যবহারের জন্যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পাকিস্তান সিভিল অথরিটির তরফে।

প্রসঙ্গত পুলওয়ামা হামলার বদলা নিতে গত কয়েকদিন আগে সীমান্ত পের হয় ভারতীয় বায়ুসেনা। যার পালটা হিসাবে পাকিস্তানের এয়ারফোর্সের একাধিক যুদ্ধবিমান ধেয়ে আসে ভারতের দিকে। আকাশসীমা লঙ্ঘন করে ভারতের মিলিটারি বেসে আঘাত হানার চেষ্টা করে পাকিস্তান এয়ারফোর্স। যা নিয়ে নতুন করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ভার‍ত এবং পাকিস্তান।

রাতারাতি পালটা প্রত্যাঘাতের আশঙ্কায় পাকিস্তান সমস্ত এয়ার স্পেস বন্ধ করে দেয়। পালটা ব্যবস্থা নেয় ভারতও। যদিও কিছুক্ষণের মধ্যে ভারতের আকাশে সমস্ত বিমান চলাচল স্বাভাবিক হিসাবে ঘোষণা করে দেয়। কিন্তু পাকিস্তান ভারতের প্রত্যাঘাতের আশঙ্কায় আজও ভুগছে।

সেখানকার বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক এলওসির উপর দিয়ে বিমান চলাচলের উপর নতুন করে বেশ কিছু বিধি নিষেধ লাঘু করা হয়েছে। সমস্ত বিমানকে এলওসি’র উপর না যাওয়ার আগে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে পাক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, নিষেধাজ্ঞা লাঘু করা হলেও আগামীকাল শুক্রবার হয়তো সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হতে পারে। কারণ, গত কয়েক ঘন্টা কেটে গিয়েছে নতুন করে সীমান্তে কোনও সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন হয়নি। সেই কারণেই পাক সরকার এহেন সিদ্ধান্ত নিতে পারে বলে দাবি করেছে সে দেশের সংবাদমাধ্যম।