করাচি: সোমবার সকালে পাকিস্তানের করাচি স্টকএক্সচেঞ্জে চার বন্দুকধারীর ‌ হামলায় অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছে। পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জ বিল্ডিংএ এই হামলার পরেই করাচি স্টক এক্সচেঞ্জ ১০০(কেএসই ১০০) সূচক নেমে যায় ২২০ পয়েন্ট। লগ্নিকারীরা এই হামলার খবর পাওয়ার পরই এদিন সূচক নেমে যেতে দেখা গিয়েছিল। কিন্তু এই হামলার ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই স্টক এক্সচেঞ্জের সূচকের অবস্থান পরিবর্তন করতে দেখা গেল। সূচক এ দিনের সর্বনিম্ন অবস্থান থেকে ৩৯৮ পয়েন্ট উপরে উঠে আসে। ফলে কেএসই ১০০ সূচক পৌঁছে যায় ৩৪,১১১ পয়েন্টে। পাকিস্তান নিরাপত্তা অফিসাররা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, ওই চার আততায়ীকে পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জের মূল ভবনে ঢোকার আগে গুলিবিদ্ধ করা হয়েছে।

এদিকে আবার দেখা যায় কেএসই৩০ সূচক ওই হামলার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে। সংবাদমাধ্যমে রিপোর্ট অনুসারে, এক্সচেঞ্জ ভবনটির দুটি বিল্ডিং রয়েছে যেখানে ওই বন্দুকধারীরা প্রবেশ করতে পারেনি। পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জের ডিরেক্টর আবিদ আলি হাবিবের উদ্ধৃতি দিয়ে পিটিআই জানিয়েছে, জঙ্গিরা ঝড় তোলে রেলওয়ে গ্রাউন্ডের পার্কিং এলাকায় এবং খোলাখুলি গুলি চালাতে থাকে পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জ গ্রাউন্ডের বাইরে। তারা ওই ভবনের প্রধান ফটকের মধ্যে দিয়ে বিল্ডিং এর ভেতর ঢুকতে যাওয়ার সময় গুলিবর্ষণ করতে থাকে তখন নিরাপত্তাকর্মীরা তাদের প্রতিহত করে।

এই জঙ্গিহানা দায়িত্ব নিয়েছে বালুচিস্তান লিবারেশন আর্মির একটি শাখা বলে রিপোর্টে জানানো হয়েছে। চারজন সিকিউরিটি গার্ড এবং একজন পুলিশ সাব ইন্সপেক্টর নিহত হয়েছে যখন এই জঙ্গিরা পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জ প্রবেশ করতে যায়।

সোমবার সকালে যখন বাজার খুলে ছিল তখন কে এস ই ১০০ সূচক অবস্থান করছিল ৩৩,৯৩৯ পয়েন্টে এবং শীঘ্রই তা উঠে আসে ৩৪,০০০ ঘরের খুব কাছে। কিন্তু চার বন্দুকধারী স্টক এক্সচেঞ্জে হামলা করেছে খবর ছড়িয়ে পড়তেই সূচক তরতর করে নেমে আস থাকে এবং কে এস ই ১০০ প্রায় ৩০০ পয়েন্ট নেমে যায়। তারপর অবশ্য সূচক ধীরে ধীরে গতিপথ পরিবর্তন করে উপরে উঠতে থাকে এবং সহজেই ৩৪০৭৫ পয়েন্টে পৌঁছয়। করোনা ভাইরাসের কারণে সম্প্রতি এই সূচকটি ৪০,০০০ পয়েন্ট থেকে ৩০,০০০পয়েন্টের তলায় নেমে গিয়েছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV