নয়াদিল্লি: ভারতের কাশ্মীরে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করায় নড়েচড়ে বসছে পাকিস্তান৷ জম্মু কাশ্মীরে অতিরিক্ত সুরক্ষাবাহিনী মোতায়েন করার নির্দেশ জারি হতেই পাকিস্তান বর্ডারের পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে ইসলামাবাদ তৈরি করল স্পেশাল সেল৷পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার জেরে জম্মু কাশ্মীরে গত ২৪ ঘন্টায় উপত্যকার ছবি পালটে গিয়েছে৷ কড়া করা হয়েছে নিরাপত্তা৷

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের ডিগবাজি, জইশের সদর দফতর দখল নেওয়ার দাবি খারিজ

এরপরই পাকিস্তানের কপালে চিন্তার ভাঁজ পরতে দেখা যাচ্ছে৷ কাশ্মীরে ১০০ অতিরিক্ত প্যারামিলিটারি পৌঁছনোর খবর ছড়াতেই পাক সরকারে হইচই পরে গিয়েছে বলে সূত্রের খবর৷
শনিবার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই পাকিস্তানের বিদেশ বিভাগ স্পেশাল সেল গঠন করে৷

সূত্রের খবর, শনিবার সীমান্তে পাকিস্তানের ছোড়া গুলির কড়া জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনা৷ জানা যাচ্ছে পাক সরকারের এই সেল সপ্তাহের সাত দিনেই নিরবিচ্ছিন্ননভাবে কাজ করবে৷ এর এক দিন আগে পাকিস্তান সেনার চিফ জাভেদ বাজওয়া সীমান্ত পরিদর্শন করেন৷ পাকিস্তানে আগেই অ্যালার্টও জারি করা রয়েছে৷ বিভিন্ন মহল মনে করছে, পাকিস্তান ভয় পাচ্ছে উড়ি হামলার পরে ২০১৬র সার্জিকাল স্ট্রইকের মতো ভারত আগামি কয়েক দিনের মধ্যে কোনও বড় পদক্ষেপ না করে ফেলে৷

আরও পড়ুন: যুদ্ধের প্রস্তুতিতে ভারতীয় সেনার ছুটি বাতিল

অন্যদিকে ভারত সরকার বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক কড়াকড়ি শুরু করে দিয়েছে৷ কম করে ১৫০ জনকে গ্রেফতার করার ঘটনায় শনিবার কাশ্মীরে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়৷ ধৃতদের মধ্যে বেশিরভাগ জমাত-ই-ইসলামী জম্মু এন্ডের চিফ আব্দুল হমিদ ফৈয়াজ এবং জেকেএলএফ চিফ ইয়াসিন মালিক রয়েছে৷ তবে পুলিশ জানিয়েছে নিয়মিত প্রক্রিয়া অনুযাই এই ধড়পাকড় করা হয়েছে৷ কয়েকজন আবার জানাচ্ছেন জমাত ই ইসলামের উপর এই প্রথম এত বড় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে৷ এই সংগঠন হিজবুল মুজাহিদিনের রাজনৈতিক শাখা হিসেবে কাজ করে৷