ইসলামাবাদ: ভারত যদি আমাদের গ্রামবাসীকে টার্গেট করে, তাহলে পাকিস্তান যোগ্য জবাব দিতেই থাকবে। শনিবার ইসলামাবাদে একথা বললেন পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রী খাওয়াজা আসিফ। এনএসএন বৈঠক বাতিল হয়ে যাওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যেই পাকিস্তানে মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের। আহত প্রায় ৪০ জন। ”যে কোনও পর্যায়ে গিয়ে আমরা এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করব”, এভাবেই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাক মন্ত্রী। যদি যুদ্ধ করতে বাধ্য করা হয়, তাহলে সেটাও ভালভাবে করতেই পাকিস্তান প্রস্তুত বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

১.পাকিস্তানকে জঙ্গি-হেলিকপ্টার দেবে আমেরিকা

২.আইএস-কে নিষিদ্ধ ঘোষণা করল পাকিস্তান

৩.‘‘শীঘ্রই বিশ্বের তৃতীয় পরমাণু শক্তিধর দেশ হচ্ছে পাকিস্তান’’

৪.ভারতকে দোষারোপ করে রাষ্ট্রসঙ্ঘে বার্তা পাকিস্তানের

৫.পাকিস্তানের হুমকির জের,তড়িঘড়ি বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

পাকিস্তানের গুলিতে ভারতের চার বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে। ভারত যদি সীমান্ত পেরনোর চেষ্টা করে তাহলে, তাহলে দেশ রক্ষায় পাকিস্তান কড়া পদক্ষেপ নেবে বলেও জানান তিনি। আগামী মাসে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সম্মেলনে এই ইস্যু তুলবেন নওয়াজ শরিফ। গত কয়েক মাস ধরেই সীমান্তে চলছে গোলাগুলি। সম্প্রতি এনএসএ বৈঠক বাতিল হয়ে যাওয়ার পর পরিস্থিতি আরও খারাপ পর্যায়ে পৌঁছেছে। স্বাধীনতা পাওয়ার পর থেকে দুই দেশ দু’বার যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে কাশ্মীর দখল নিয়ে। বর্তমানে সীমান্তের পরিস্থিতি অত্যন্ত অশান্ত।