ম্যাঞ্চেস্টার: বৃষ্টির ভ্রুকুটি উপেক্ষা করে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত-পাকিস্তান মহারণে নির্ধারিত সময়েই হল টস। যদিও মেগা ম্যাচে টসভাগ্য সঙ্গ দিল না ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। টস জিতে ভারতকে প্রথমে আমন্ত্রণ জানালেন পাক দলনায়ক সরফরাজ আহমেদ। শিখর ধাওয়ানের পরিবর্তে মেন ইন ব্লু’র একাদশে অন্তর্ভুক্তি ঘটল বিজয় শঙ্করের।

সকাল থেকে বৃষ্টি না হলেও ম্যাঞ্চেস্টারের আকাশে দেখা নেই বরুণদেবের। টস জিতে তাই আবহাওয়ার ফায়দা নেওয়ার বিষয়ে কোনও ভুলচুক করলেন না পাক দলনায়ক সরফরাজ। তবে ভারতের বিরুদ্ধে দুই স্পিনার খেলানোর ঝুঁকি নিল পাক টিম ম্যানেজমেন্ট। কোহলিদের বিরুদ্ধে গ্রিণ ব্রিগেডে কামব্যাক করলেন শাদাব খান ও ইমাদ ওয়াসিম।

অন্যদিকে টস হেরে বিরাট জানালেন টসভাগ্য সঙ্গ দিলে মেঘলা আবহাওয়ায় প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিতেন তিনিও। তবে একেবারেই হতাশ হতে রাজি নন ভারত অধিনায়ক। চোটের কারণে শিখর ধাওয়ানের পরিবর্তে বিশ্বকাপে অভিষেক ঘটতে চলেছে বিজয় শঙ্করের। অর্থাৎ প্রথমবার আইসিসি’র কোনও ইভেন্টে রোহিত শর্মার সঙ্গে ইনিংস ওপেনে কেএল রাহুল।

দুই ওপেনারের সাবলীল ব্যাটিংয়ে মেগা ম্যাচের শুরুতে অবশ্যই অ্যাডভান্টেজ ভারতীয় দল। ১৫ ওভার শেষে ভারতের রানসংখ্যা বিনা উইকেটে ৮৭। রানিং বিটুইন দ্য উইকেটে রোহিত-রাহুলের বারদুয়েকের ভুল বোঝাবুঝি সত্ত্বেও পাক ফিল্ডারদের ব্যর্থতায় এখনও অবিভক্ত ভারতের ওপেনিং জুটি। ইতিমধ্যেই অর্ধশতরান পূর্ণ করেছেন রোহিত শর্মা। ৫৩ রানে অপরাজিত তিনি। রাহুল অপরাজিত ৩২ রানে।

একনজরে ভারতের প্রথম একাদশ: রোহিত শর্মা, কেএল রাহুল, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), বিজয় শঙ্কর, এমএস ধোনি (উইকেটরক্ষক), কেদার যাদব, হার্দিক পান্ডিয়া, ভুবনেশ্বর কুমার, কুলদীপ যাদব, যুবেন্দ্র চাহাল ও জসপ্রীত বুমরাহ।

একনজরে পাকিস্তানের প্রথম একাদশ:  ইমাম উল হক, ফকর জামান, বাবর আজম, মহম্মদ হাফিজ, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক/উইকেটরক্ষক), শোয়েব মালিক, ইমাদ ওয়াসিম, শাদাব খান, ওয়াহাব রিয়াজ, হাসান আলি ও মহম্মদ আমের।