নটিংহ্যাম: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে একতরফা হারের পর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়িয়ে দুরন্ত জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান৷ তবে এমম খুশির সময়েও অস্বস্তি পিছু ছাড়েনি পাক দলের৷ নটিংহ্যামে জয়ের পর সরফরাজদের উৎসবের মেজাজে জল ঢেলে দেয় আইসিসি৷ অধিনায়ক সরফরাজসহ গোটা দলকে শাস্তি দেয় ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল৷

প্রশ্ন হল, ট্রেন্ট ব্রিজে এমন কী দোষ করল পাকিস্তান? গুরুতর কিছু নয়, তবে ভবিষ্যতে আবার এমন ভুল করলে আরও বড়সড় শাস্তি পেতে হতে পারে পাক অধিনায়ককে৷ আসলে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নির্ধারিত সময়ে ৫০ ওভারের বোলিং কোটা পূর্ণ করতে পারেনি পাকিস্তান৷ সবদিক বিবেচনা করে আইসিসি’র হিসাব অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে এক ওভার কম বল করেছে পাকিস্তান৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ শুরুর আগে বুমরাহের ডোপ টেস্ট

আইসিসি’র কোড অফ কন্ডাক্ট অনুযায়ী এটা মাইনর ‘স্লো ওভার রেট’এর ঘটনা হিসাবে বিবেচিত হয়৷ যার শাস্তি স্বরূপ পাক দলনায়ক সরফরাজের ম্যাচ ফি’র ২০ শতাংশ কেটে নেওয়া হয়৷ শাস্তির আওতায় পড়েছে দলের বাকি ক্রিকেটাররাও৷ তাঁদেরও ম্যাচ ফি’র ১০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে৷

আগামী ১২ মাসের মধ্যে পাকিস্তান আবার স্লো ওভার রেটের দায়ে পড়লে আরও বড়সড় জরিমানার মুখে পড়তে হবে পাক ক্রিকেটারদের৷ তেমন হলে এক ম্যাচ নির্বাসিতও হতে পারেন পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ৷

আরও পড়ুন: টিম ইন্ডিয়ার সাংবাদিক সম্মেলন বয়কট মিডিয়ার

নটিংহ্যামে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ৩৪৮ রানের বিশাল ইনিংস গড়ে তোলে পাকিস্তান৷ জবাবে ইংল্যান্ড ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৩৪ রানে শেষ করে তাদের ইনিংস৷ ১৪ রানের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ