পেশোয়ার: করোনার হানা এবার ক্রিকেটবিশ্বে৷ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে এক পাকিস্তানি ক্রিকেটার৷ পাকিস্তানের প্রথমশ্রেণির ক্রিকেটে খেলা বছর পঞ্চাশের জাফর সরফরাজ করোনায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি ছিলেন পেশোয়ারের এক হাসপাতালে৷ কিন্তু সোমবার রাতেই করোনা যুদ্ধে হার মানেই এই পাক ক্রিকেটার৷

গত মঙ্গলবার করোনা পজিটিভ ধরা পড়েন সরফরাজের। পেশোয়ারের এক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি৷ শ্বাসকষ্টের জন্য শেষ তিনদিন তাঁকে রাখা হয়েছিল ভেন্টিলেটরে৷ হাসপাতাল সূত্রে এমমটাই জানা গিয়েছে। কিন্তু সোমবার রাতে মৃত্যু হয় এই পাক ক্রিকেটারের৷ তাঁর মৃত্যু গভীর শোকপ্রকাশ করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড৷

১৯৮৮ সালে পেশাদার ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল জাফর সরফরাজের। পেশোয়ারের হয়ে ১৫টি প্রথমশ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন তিনি। করেন ৬১৬ রান। বাঁ-হাতি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানের পাশাপাশি বাঁ-হাতি স্পিনও করতেন জাফর সরফরাজ। ১৯৮৮ থেকে ১৯৯৪ পর্যন্ত প্রথমশ্রেণি ও ১৯৯০ থেকে ১৯৯২ পর্যন্ত লিস্ট-এ ক্রিকেট খেলেন তিনি।

১৯৯৪ সালে প্রথমশ্রেণির ক্রিকেট থেকে অবসর নেন সরফরাজ৷ ১৫টি প্রথমশ্রেণির ম্যাচ খেলার পাশাপাশি ছ’টি লিস্ট-এ ম্যাচ খেলেছেন তিনি৷ করেছেন মোট ৯৬ রান। অবসরের পর কোচিং জীবন শুরু করেন জাফর। পেশোয়ারের সিনিয়র ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে কোচিং করান তিনি।

জাফর পাকিস্তানের হয়ে খেলার সুযোগ না-পেলেও তাঁর দাদা আখতার জাতীয় দলের হয়ে ক্রিকেট খেলেছেন৷ কিন্তু ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ১০ মাস আগেই মার যান আখতার সরফরাজ৷ পাকিস্তানের হয়ে ৯৯৭ থেকে ১৯৯৮-এর মধ্যে চারটি ওয়ান ডে ম্যাচে প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি৷ কিন্তু গত বছর জুনে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান আখতার৷

এবার করোনার শিকার হলে ভাই জাফর সরফরাজ৷ সারা বিশ্ব কাঁপছে এই মারণ ভাইরাসে৷ পাকিস্তানেও করোনা পরিস্থিতি বেশ সঙ্গীন। এখনও পর্যন্ত ৫০০০ জনে বেশি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন৷ মারা গিয়েছেন ১০০ জনের বেশি মানু৷ সারা বিশ্বে করোনায় মারা গিয়েছে প্রায় ১ লক্ষ ২০ হাজার মানুষ৷ আক্রান্ত প্রায় ২০ লক্ষ৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV