ইসলামাবাদঃ একদিকে ভারত সহ একাধিক দেশ যখন প্রতিষেধক তৈরি এবং তার ট্রায়াল নিয়ে ব্যস্ত অন্যদিকে ক্রমেই জটিল হচ্ছে পাকিস্তানের পরিস্থিতি। এখনও পর্যন্ত পাকিস্তানে মোট সংক্রমণের হার ২,২১,০০০ তে। তবে জানা গিয়েছে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১১৩৬২৩ জন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করছেন চিকিৎসক থেকে শুরু করে একাধিক স্বাস্থ্য কর্মীরা।

স্বাস্থ্য দফতরের তরফে জানা গিয়েছে মোট ২২১৮৯৬ জন করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ১১৩৬২৩ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আর এখনও পর্যন্ত সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১০৮২৭৩ জন। পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে ৮৯২২৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। যার সুস্থ হয়েছেন ৪৯৯২৬ জন।

পঞ্জাব প্রদেশে ৭৮৩৫৬ জনের মধ্যে ৩৩৭৮৬ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। খাইবার পাখতুনখোয়াতে ২৭১৭০ জনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪৭১৫ জন। এছাড়া বালুচিস্তানে ১০৬৬৬ জনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫০৭৩ জন। এমনটা জানা গিয়েছে স্বাস্থ্য দফতরের তরফে।

এছাড়া রাজধানী ইসলামাবাদে ১৩১৯৫ জনের মধ্যে ৮২৬৪ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে এখনও পর্যন্ত ৪৫৫১ জন মারা গিয়েছেন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মারা গিয়েছেন ৭৮ জন।

এছাড়া জানানো হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ২২৯৪১ টি টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে। যার জেরে মোট টেস্টের হার দাঁড়িয়েছে ১৩৫০৭৭৩ এ। পাশপাশি পাক সরকারের তরফেও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক স্তর থেকেও পাকিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। তবে পাক প্রশাসনের তরফে ইতিমধ্যে বেশ কিছু ক্ষেত্রে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ