নয়াদিল্লি: গুলির শব্দে কাঁপছে উপত্যকা। জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার হিরানগর সেক্টর একটানা গুলি চালাচ্ছে পাকিস্তান সেনা, এমনই খবর মিলেছে। ভারি গুলিবর্ষণে আতঙ্কিত সাধারণ বাসিন্দারা।
ভারতীয় সেনার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কড়া প্রত্যুত্তর দিয়েছে ভারতীয় সেনাও। একটানা ১২ ঘন্টা ধরে ফায়ারিং চালাচ্ছে পাক রেঞ্জার্স। চলছে মর্টার হামলাও। সোমবার রাত ১০.৩০ থেকে শুরু হয়েছে হামলা। গোটা রাত ধরে হামলা চলেছে। সোমবার ভোরের দিকেও হামলা চলে কাশ্মীরে। পুঞ্চ জেলা থেকে ভারি গুলিবর্ষণের খবর আসে।

সেনা সূত্রের খবর, গত ১৫ দিন ধরে পাক সেনা সমানে গুলির লড়াই চালাচ্ছে। বিনা প্ররোচনায় পাক সেনা হামলা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ। সাধারণ মানুষ বেশ আতঙ্কিত। সংবাদসংস্থা এএনআইকে স্থানীয় বাসিন্দারা জানাচ্ছেন এই গুলির লড়াইয়ে সাধারণ জনজীবন স্তব্ধ হয়ে পড়েছে। কিন্তু প্রশাসনের কোনও হেলদোল নেই বলেও অভিযোগ তাঁদের।

এদিকে, রবিবার সকালেই বড়সড় সাফল্য পায় বিএসএফ। একদল পাকিস্তানির ভারতে অনুপ্রবেশের ছক বানচাল করে বর্ডার সিকিওরিটি ফোর্স। জম্মু কাশ্মীরের কুপওয়াড়া জেলার নওগাম সেক্টরে এই অনুপ্রবেশের চেষ্টা ভেস্তে দেওয়া হয়।

বিএসএফ সূত্রে খবর, রবিবার ভোরে একদল পাকিস্তানি ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালাচ্ছিল। টহলরত বিএসএফ তাদের দেখতে পেয়েই গুলি চালাতে শুরু করে। পরে ওই দল পাক অধিকৃত কাশ্মীরের দিকে পালিয়ে যায়। সীমান্ত বরাবর বারবারই অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালাচ্ছে পাকিস্তান। জম্মু কাশ্মীরের পুঞ্চে ফের ভারতীয় সেনার সাফল্য। পুঞ্চে উদ্ধার হয় জঙ্গিদের গোপন ঘাঁটি। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ভারতীয় সেনা ও জম্মু কাশ্মীর পুলিশ একটি যৌথ তল্লাশি অভিযান শুরু করে।

রবিবার পাকিস্তানি সেনারা নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে মেন্ধার এবং বালাকোট সেক্টরে আক্রমণ চালায়। এই ঘটনায় চারজন নাগরিক, এদের মধ্যে তিনজন মহিলা গুরুতরভাবে আহত হন। শনিবার সকালের দিকে শাহপুর এবং কিরণি সেক্টরেই গুলিবর্ষণ করে।