লন্ডন: পাকিস্তান সরকারকে প্রবল কটাক্ষ করলেন দেশের প্রাক্তন ক্রিকেট তারকা শাহিদ আফ্রিদি৷ নাম না করে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সমালোচনা করলেন বিদেশ থেকে৷ লন্ডন থেকে এই পাক তারকা জানিয়েছেন, দেশের বিভিন্ন প্রদেশের আইন শৃঙ্খলা সামাল দিক সরকার, পরে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে সরব হবে৷ আফ্রিদির মন্তব্যের পরেই আন্তর্জাতিক মহল সরগরম৷ বিশেষ করে ভারত ও পাকিস্তানের কূটনৈতিক মহলে ছড়িয়েছে শোরগোল৷

আফ্রিদি বলেছেন-কাশ্মীর কোনও ইস্যু নয়৷ আমি মনে করি কাশ্মীরকে দরকার নেই পাকিস্তানের৷ দেশের চারটি প্রদেশ সামলানো সম্ভব হচ্ছে না৷ ইন্ডিয়াকে দেওয়ারও প্রয়োজন নেই৷ কাশ্মীরকে আলাদা দেশ বানাও৷

সম্প্রতি পাকিস্তানে ধর্ম অবমাননা আইনে বন্দি থাকা ফাঁসির আসামী খ্রিষ্টান মহিলা আসিয়া বিবিকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে৷ পাক সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর থেকেই ধর্মীয় মৌলবাদী সংগঠনগুলির বিক্ষোভে ইমরান খানের সরকার প্রায় অসহায় হয়ে গিয়েছিল৷ ইঙ্গিতে এই প্রসঙ্গ টেনে এনে চারটি প্রদেশকে সামলানোর খোঁচা দিয়েছেন আফ্রিদি৷

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন প্রাক্তন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ক্রিকেট অধিনায়ক ইমরান খান৷ তিনি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরেই ভারত-পাক সম্পর্কের গরম অবস্থান ঠাণ্ডা করার চেষ্টা হবে বলে মনে করা হচ্ছিল৷ কিন্তু সেই পরিস্থিতি তেমন হয়নি৷ অন্যদিকে দুই দেশের মধ্যে থাকা লাইন অফ কন্ট্রোলের উত্তেজনাও কমেনি৷ নিয়ন্ত্রণ রেখায় গুলিবিনিময় চলছেই৷

পাক অধিকৃত কাশ্মীর থেকে বারে জঙ্গি তৎপরতায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ করে ভারত৷ সেই প্রমাণও মিলেছে বহু৷ তবুও পাক সরকার অবস্থান পাল্টায়নি৷ এমনই প্রসঙ্গ টেনে সরকারের সমালোচনা করেছেন প্রাক্তন পাক অলরাউন্ডার শাহিদ আফ্রিদি৷ তিনি লন্ডনে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসেছেন৷ সেখানেই সাংবাদিক সম্মেলনে তাঁর দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রবল সমালোচনা করেছেন৷