লিডস: বাবর আজম ও সরফরাজ আহমেদের লড়াকু ইনিংস ব্যর্থ করে দুরন্ত জয় ইংল্যান্ডের৷ সিরিজ জয় আগেই নিশ্চিত করেছিল ব্রিটিশরা৷ নিয়মরক্ষার শেষ ম্যাচেও পাকিস্তানকে ৫৪ রানে হারিয়ে দেয় ইয়ন মর্গ্যানরা৷

হেডিংলে’তে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড৷ নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৫১ রান তোলে তারা৷ জো রুট ও ক্যাপ্টেন মর্গ্যান হাফসেঞ্চুরি করেন৷ শাহিন শাহ আফ্রিদি ও ইমদ ওয়াসিম নজরকাড়া বোলিং করেন৷

আরও পড়ুন: রিজার্ভ ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপর জন্য ডাক পেলেন ব্র্যাভো, পোলার্ড

জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান ৪৬.৫ ওভারে ২৯৭ রানে অলআউট হয়ে যায়৷ বাবর ও সরফরাজেক হাফসেঞ্চুরি ব্যর্থ হয়৷ সরফরাজ ব্যক্তিগত শতরান হাতছাড়া করেন৷ ক্রিস ওকস একাই পাক ব্যাটিং লাইনআপের মেরুদণ্ড ভেঙে দেন৷

মঈন আলি ছাড়া ইংল্যান্ডের প্রায় সব ব্যাটসম্যানরাই দলের ইনিংসে অল্প-বিস্তর অবদান রাখেন৷ দুই ওপেনার ভিন্স ও বেয়ারস্টো যথাক্রমে ৩৩ ও ৩২ রান করে আউট হন৷ জো রুট ৮৪ ও মর্গ্যান ৭৬ রানের যোগদান রাখেন৷ বাটলার ৩৪, স্টোকস ২১, টম কারান অপরাজিত ২৯ রান করেন৷

আরও পড়ুন: বিদেশের টি২০ লিগে খেলতে চান, দেশের জার্সিতে অবসরের কথা ভাবছেন যুবরাজ

আফ্রিদি ১০ ওভারে ৮২ রান খরচ করলেও ৪টি উইকেট নিয়েছেন৷ ইমদ ওয়াসিম নিয়েছেন ৫৩ রানে ৩ উইকেট৷ একটি করে উইকেট পেয়েছেন হাসান আলি ও মহম্মদ হাসনাইন৷

পাকিস্তানের হয়ে বাবর আজম ৮০ ও সরফরাজ ৯৭ রান করেন৷ সরফরাজ দূর্ভাগ্যজনক রান-আউট হয়ে ক্রিজ ছাড়েন৷ বাকিরা তেমন একটা যোগদান রাখতে পারেননি৷ ক্রিস ওকস ৫৪ রানের বিনিময়ে একাই ৫টি উইকেট দখল করেন৷ ২টি উইকেট নিয়েছন আদিল রশিদ৷ একটি উইকেট উইলির৷ ম্যাচের সেরা হয়েছেন ওকস৷ সিরিজ সেরা জেসন রয়৷ এই জয়ের সুবাদে ইংল্যান্ড ৫ ম্যাচের একদিনর সিরিজ জেতে ৪-০ ব্যবধানে৷ বৃষ্টির জন্য একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়৷