ইসলামাবাদ :  বুধবার পাকিস্তানের উপর চাপ বাড়াতে অল ইন্ডিয়া রেডিয়োকে বালোচি ভাষায় অনুষ্ঠান সম্প্রচার করার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে পাকিস্তানও হাত গুটিয়ে বসে থাকেনি। ভারতের উপর পাল্টা চাপ দিতে এবার ভারতীয় চ্যানেলের বিষয়বস্তু সম্প্রচারে রাশ টানছে ইসলামাবাদ। এবার থেকে পাকিস্তানে ৬ শতাংশের বেশি ভারতীয় চ্যানেলের বিষয়বস্তু সম্প্রচার করা যাবে না বলে জানালো পাকিস্তান।

ভারতীয় চ্যানেলগুলি এমনিতেই বেশ জনপ্রিয় পাকিস্তানে। কিন্তু অতিরিক্ত ‘‌বিদেশি বিষয়বস্তু’‌ থাকায় তা নিষিদ্ধ করা হল। ২০১৬ সালের ১৫ অক্টোবর থেকে বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলকে ভারতীয় চ্যানেলের বিষয়বস্তু সম্প্রচারের অনুমতি দেওয়া হয়। দিনের ১০ শতাংশ সময় ভারতীয় চ্যানেলগুলোর জন্য বরাদ্দ করা যেত। অর্থাৎ দিনে ২ ঘণ্টা ৪০ মিনিট ভারতীয় চ্যানেল সম্প্রচার করতে পারত পাকিস্তানের চ্যানেলগুলো। সেই নিয়মেই আনা হল পরিবর্তন। ‌

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।