ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: করোনা মোকাবিলা নিয়ে পাকিস্তানকে দরাজ সার্টিফিকেট কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর। ভারত সরকারের চেয়ে আরও ভালোভাবে করোনার সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছে পাকিস্তান সরকার। এমনই মনে করেন কংগ্রেস সাংসদ। করোনা নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আফগানিস্তান সরকারের ভূমিকারও প্রশংসা শোনা গিয়েছে রাহুলের গলায়।

করোনার করাল গ্রাসে গোটা দেশ। প্রতিদিন দেশে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। যদিও গত কয়েকদিনে দেশে দৈনিক সংক্রমণ খানিকটা হলেও কমেছে। সুস্থতার হার ক্রমশ বেড়ে যাওয়ায় বলা যেতে পারে দেশে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে এগোচ্ছে।

শুক্রবার দেশের মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা পেরিয়ে গিয়েছে ৬৫ লক্ষ। সেই সঙ্গে দেড় মাসের মধ্যে প্রথমবার সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা কমতে কমতে নেমে এসেছে ৮ লক্ষেরও নিচে। পাশাপাশি শুক্রবারের থেকে সামান্য হলেও শনিবার কমেছে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা।

শনিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৬২ হাজার ২১২ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা আগের দিনের থেকে প্রায় ১ হাজার কম। এই নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৪ লক্ষ ৩২ হাজার ৬৮১ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃতের সংখ্যাটা খানিকটা কমেছে। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ৮৩৭ জনের। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ১২ হাজার ৯৯৮।

দেশে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়াতে শুরু করেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। নির্দিষ্ট পরিকল্পনা না থাকায় সংক্রমণে লাগাম পরাতে কেন্দ্র ব্যর্থ হয়েছে বলেও অভিযোগ তোলেন রাহুল। পাকিস্তান ও আফগানিস্তানেও ছড়িয়েছে সংক্রমণ। তবে রাহুল গান্ধীর দাবি, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ভারতের তুলনায় করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতি আরও ভালো ভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।