এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের আগ্রাসন৷ ছবি-আইসিসি টুইটার

দুবাই: এশিয়া কাপের উত্তেজক ভারত-পাক লড়াইয়ে প্রাথমিকভাবে ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে নিল টিম ইন্ডিয়া৷ টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানকে ১৬২ রানে অলআউট করে দেয় রোহিতরা৷ ভুবনেশ্বর-বুমরার পেস জুটির পাশাপাশি দুরন্ত বোলিং করেন পার্টটাইম স্পিনার কেদার যাদব৷ সুতরাং জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন ১৬৩ রান৷

আরও পড়ুন: Breaking: চোট পেয়ে স্ট্রেচারে মাঠ ছাড়লেন পান্ডিয়া

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামের স্লো পিচে পরে ব্যাট করা তুলনায় কঠিন৷ স্বাভাবিকভাবেই টসি জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাক দলনায়ক সরফরাজ আহমেদ৷

যদিও অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে মর্যাদা দিতে পারেননি পাক ওপেনাররা৷ মাত্র ৩ রানের মধ্যে আউট হয়ে ক্রিজ ছাড়েন ইমাম-উল-হক (২)ও ফকর জামান (২)৷ দু’জনকেই ফেরত পাঠান ভুবনেশ্বর কুমার৷

অবশ্য শুধু দুই ওপেনারই নন, বাবর আজম ও শোয়েব মালিক ছাড়া আর কোনও পাক ব্যাটসম্যানই ভারতীয় বোলারদের সামনে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেননি৷ব্যর্থ পাক অধিনায়ক নিজেও৷

আরও পড়ুন: ভারতের বিরুদ্ধে টসে জিতে ব্যাটিং পাকিস্তানের

প্রাথমিক বিপর্যয় রোধ করে বাবর-শোয়েব জুটি তৃতীয় উইকেটে ৮২ রান যোগ করেন৷ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরির দোরগোড়া থেকে বাবরকে ফেরত পাঠান কুলদীপ যাদব৷ ৬টি বাউন্ডারিরি সাহায্যে ৪৭ রান করে বোল্ড হন তিনি৷ দু’বার জীবনদান পেয়ে শোয়েব রানআউট হন ব্যক্তিগত ৪৩ রানে৷

দুই সেট ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পরেই ধস নামে পাকিস্তানের মিডলঅর্ডারে৷ কেদার যাদব পর পর ফিরিয়ে দেন সরফরাজ আহমেদ (৬), আসিফ আলি (৯) ও শাদব খানকে (৮)৷

আরও পড়ুন: লড়ে জয় ভারতের

শেষদিকে মহম্মদ আমিরকে সঙ্গে নিয়ে ৩৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ফহিম আশরাফ৷ ফহিমকে ২১ রানে আউট করেন বুমরাহ৷ হাসান আলি ১ রান করে ভূবনেশ্বরের শিকার হন৷ খাতা খোলার আগেই উসমান খানকে বোল্ড করেন বুমরাহ৷ আমির ১৮ রান করে অপরাজিত থেকে যান৷

ভারতের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন ভুবনেশ্বর ও কেদার৷ দু’টি উইকেট নিয়েছেন বুমরাহ৷ একটি উইকেট কুলদীপ যাদবের৷ গোটা ইনিংসে ভারতের দুরন্ত বোলিংয়ের মাঝে চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায় হার্দিক পান্ডিয়ার চোট৷ইনিংসের আঠারোতম ওভারে কোমরে চোট পেয়ে স্ট্রেচারে মাঠ ছাড়েন হার্দিক৷