শ্রীনগর: ফের সন্ত্রাস পাকিস্তান মদতপুষ্ট জঙ্গিদের৷ বৃহস্পতিবার জম্মু-কাশ্মীরের সাম্বা ও হীরানগর সেক্টর উত্তপ্ত হয়ে উঠল গুলির লড়াইয়ে৷ সেনা জঙ্গি সংঘর্ষে মঙ্গলবার এই সাম্বা সেক্টরেই শহিদ হয়েছিলেন এক বিএসএফ কনস্টেবল৷ সেই সাম্বা আহত হয়েছেন আরও একজন বিএসএফ জওয়ান৷

সাম্বা সেক্টরের আন্তর্জাতিক সীমানা বরাবর গুলির লড়াই শুরু হয়৷ ভারতীয় সেনাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে পাক রেঞ্জার্স৷ বিনা প্ররোচনায় তারা গুলি চালায় বলে খবর৷ এছাড়াও, ১০টিরও বেশি আউটপোস্টে হামলা চালানো হয়েছে বলে সেনা সূত্রে খবর৷

উল্লেখ্য, পবিত্র রমজান শুরু হয়েছে৷ তাই এই সময় কোনও অভিযান না চালানোর ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র৷ তবে তা মানল না পাকিস্তান৷ ‘সংঘর্ষবিরতি’ ঘোষণার পরেই তা ভাঙল পাক সেনারা৷ বুধবারই ভারতীয় সেনার পেট্রলিং-এর সময় নির্বিচারে গুলি চালায় পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা৷ জম্মু-কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলার জামনাগরি এলাকায় এই সংঘর্ষ বিরতির ঘটনা ঘটে৷ পালটা গুলি ছোঁড়ে ভারতীয় সেনাও৷ শুরু হয় গুলির লড়াই৷

রমজান মাসে কোনও সংঘর্ষ বা গুলির লড়াইয়ে অংশ নেবে না ভারতীয় সেনা৷ এই ঘোষণার ঘন্টা খানেক পরেই শুরু হয় এই হামলা৷ সংঘর্ষ বিরতির জারি করার আবেদন করেছিলেন জম্মু কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি৷
রমজান মাসেও রক্তাক্ত হতে পারে কাশ্মীর৷ হতে পারে নাশকতামূলক একাধিক হামলা৷ কারণ জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবা বুধবার জানিয়ে দিয়েছিল তারা উপত্যকায় কোনও রকম সংঘর্ষবিরতি হতে দেবে না৷ ভারতীয় সেনাবাহিনীকে লক্ষ্য করে হামলা জারি থাকবে৷ সেই হুমকি জারি রেখেই একের পর এক সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটে চলেছে৷