নয়াদিল্লি: ‘খবর পাওয়া যাচ্ছে, নতুন করে সাজানো হচ্ছ বালাকোট।’ এয়ার স্ট্রাইক প্রসঙ্গে এমনটাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এক সভায় এমনটাই বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, তাঁর মনে হয়েছিল যে সন্ত্রাসবাদকে সমূলে উপড়ে ফেলা প্রয়োজন। যেখানে বসে সন্ত্রাসবাদী কাজকর্ম চলছে, সেখানেই আঘাত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মোদী আরও বলেন, ‘পাকিস্তান এখন দাবি করছে যে ওখানে কোনও টেরর ক্যাম্প ছিল না। আসলে এখন সত্যিটা লুকোতে হচ্ছে। আমরা শুনেছি বালাকোট নতুন করে সাজাতে হচ্ছে। সেখানে স্কুল খুলে দেখাতে হবে যে জঙ্গি শিবির ছিল না।’

পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যুর পর বালাকোটে এবার স্ট্রাইক করে বায়ুসেনা। জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়ে আসে ভারতের যুদ্ধবিমান। যদিও সেকথা পাকিস্তান অস্বীকার করে। সেখানে কোনও আন্তর্জাতিক মিডিয়াকে ঢুকতেও দেওয়া হয়নি।

ভারতীয় বায়ু সেনার বিমান দেখে পাকিস্তানের বিমান এফ-16 একবার ওড়ার পরিকল্পনা করলেও ভারতীয় বায়ু সেনার বিমানের আকার দেখে তারা পিছিয়ে যায় । কারন পাকিস্তান খুব ভাল করেই বুঝে গিয়েছিল তাদের বিমান ভারতীয় বায়ুসেনা উড়িয়ে দিতে পারে।

বছর ১৫ আগে বালাকোটে জইশের ঘাঁটির মানচিত্র তৈরি করেছিল ‘র’-এর প্রাক্তন অফিসার অমর ভূষণ। তিনি জানিয়েছেন, ওই ক্যাম্প জঙ্গিশূন্য হতেই পারে না। তাই এয়ার স্ট্রাইকের সময় সেখানে কেউ ছিল না, এই তত্ত্ব ভুল বলেই মনে করছেন তিনি।