কলকাতা: আবার একখানা ব্লান্ডার করে ফেলেছে পাকিস্তান। কয়েকদিন আগেই রবি ঠাকুরের পংক্তি মুখে বসিয়ে দিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এবার ভুলটা করলেন তাঁরই অ্যাসিস্ট্যান্ট।

শনিবার ট্যুইটার হ্যান্ডেলে একটি ছবি পোস্ট করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রীর স্পেশাল অ্যাসিস্ট্যান্টনঈম উল হক। একটি সাদা-কালো ছবি পোস্ট করে তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন, ইমরান খান। কিন্তু একটি ভালোভাবে দেখলেই বোঝা যাবে এটি আসলে শচিন তেন্ডুলকরের ছবি। স্বাভাবিকভাবেই ভারতীয়রা ট্যুইটার জুড়ে খোরাক করেছে সেই ছবিটিকে।

কেউ আসাদুদ্দিন ওয়াইসির ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার সঈদ আনিয়ারের নাম। কেউ তো একটা আস্ত আলুর ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ইনজামাম উল হক। অর্থাৎ শচিন তেন্ডুলকর যদি ইমরান খান হতে পারেন, তাহলে একটা আলুও ইনজামাম উল হক হয়ে যেতে পারে।

কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক হয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নিজে৷ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি উদ্ধৃতিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন তিনি৷ তবে তারপরেই বিপত্তি বাঁধান৷ ইমরান খান লেখেন এই উক্তিটি খলিল জিবরানের৷ খলিল জিবরান প্রখ্যাত সাহিত্যিক, যিনি জন্মসূত্রে লেবানিজ হলেও, কর্মসূত্রে দীর্ঘসময় কাটিয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে৷

তবে এর প্রেক্ষিতে কেউ কেউ বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও শর্মিলা ঠাকুরের মধ্যে কোনও সম্পর্ক যে নেই, তা যেন পাক প্রধানমন্ত্রীকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়৷

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা এই উক্তিটি ছিল “I slept and dreamt that life was joy. I awoke and saw that life was service. I acted and behold, service was joy.” আর এই উক্তিকেই জিবরানের মুখে বসিয়ে দেন ইমরান খান।